পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/১৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


' రి তামার বোম্বাই প্রব{স ত্র্যম্বক তীর্থ। পঞ্চবটী দ গুকাবণ্যের সেই প্রদেশ–রামচন্দ্র সীতাদেবীর সঙ্গে বনবাসে BB BBBB BBB BBB BBB BBB BBS BB BBBS BBB BBDDD DDD BBBBB BBB BBB S gg BBB BBBBBB BBS BBBS BBBBB SBBB BBBS নাটক বিরচিত। পঞ্চবটীতে সীতবামের বনবাসের স্মৃতিচিহ্ন সকল রক্ষিত হইয়াছে - রামকুণ্ড যেখানে রামচন্দ্র মন কবিতেন, সীতা গুম্ফ যেখান হইতে রাবণ কর্তৃক সীতাহরণ হয়, যেখানে সুর্পনখা লক্ষ্মণেব মন ভুলাইতে গিয়া নাক কাণ হাব ইয়া বিপদগ্ৰস্ত হয়, পাণ্ডারা এই সকল মনঃকল্পিত স্থান দেখাইয়৷ যাত্ৰীদেব কৌতুহল উদ্দীপন করে । কেহ কেহ বলে, সুর্পনখার নাসিক ছেদের প্রবাদ হইতে নাসিক’ নামের ব্যুৎপত্তি। এই কি সত্যই সেই রামায়ণেব পঞ্চবটী ? ইহা নিঃসন্দেহ স্থির কবা যায় না। পাণ্ডাব নিজেদের লাভ হিসাবে যাহা বলে তাহ বেদবাক্য বলিয়া মানিয়া লওয়া যায় না ; কিন্তু তাহাদের কথায় সন্দেহ যাই থক্‌ এটা ত নিশ্চয় যে কবিকাৰ্বিত পুবাণে গোদাবরী gBB BBB BBBB BBBBBS BDD DBB BBB gBB BB BDD gBBB BBB


۔

BBBBB BBBB BBBBBS BBB BB BBBB BBBBB B BBBBBB BBS BB অস্বীকার কবিতে পারে ? BBBB BBB BBBBB BBBBB BBB BBBB BBB DDS BBBB BB আবদুল হক । লোকটা খুব মিশুক, চতুর ও উদ্যমশীল, নিজ গুণে নিজেব ভাগ্যলক্ষ্মীকে দাসীরূপে বশ করিয়া লয়। আমাদের সঙ্গে তিনি ভাই বোন পাতাইয়াছিলেন—আমি BB BBBBBS BBB B BBBBBS BBBB BB BBBBB BBBS BB করিতেন ও আপনার জীবনের সমস্ত ভাবি সঙ্কল্প লষ্টয়া কথাবাৰ্ত্ত কঠিতেন । সে সময়ে তিনি পুলিশেব এক সামান্ত কৰ্ম্মচারী ছিলেন, পরে হাইদ্রাবাদে গিয়া নিজমের চাকরী গ্রহণ করেন। সেখানে তাহার উপযুক্ত কৰ্ম্মক্ষেত্ৰ পাইলেন । ক্রমে নিজ উদ্যোগ ও পরিশ্রমে উচ্চপদে আরোহণ করিলেন ও যিনি সামান্ত আবদুল হক নামে পরিচিত ছিলেন তিনি সর্দার দিলার জঙ, দিলার-উদ্দৌলা উচ্চ হইতে উচ্চতর পদবী উপার্জন করিলেন । হাইদ্রাবাদে তিনি নিজামের ষ্টেট বেলওয়েতে নিযুক্ত হইয়া সেই সংক্রান্ত কর্ঘ্যে ইংলণ্ডে গিয়া বিলক্ষণ থ্যাতি প্রতিপত্তি লাভ করেন। বোম্বায়ে তিনি বিস্তব বিষয়সম্পত্তি করিলেন এবং সেখানকার এক নামাঙ্কিত বড় হোটেল (Watson’s Hotel) ক্রয় করিয়া তাহার অধিস্বামী হন । প্রভূত ঐশ্বর্যশালী হইয়াও তিনি তাহাব গবীব ভাইবোনকে ভোলেন নাই। আমরা যখনি বোম্বায়ে যাইতাম, তখনি নিজ হোটেলে আমাদের আতিথ্য করিতেন, আমাদের থাইখরচার বিল পাঠাইতেন না। ভান-সাহেবের খাতিরে আমরা তার হোটেলে গিয়া দিব্য আরামে কাল কাটাইতাম। অনেক বৎসর হইল, তাহার মৃত্যু