পাতা:ইঞ্জিল মুকদ্দস্‌.djvu/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

| > 0 } হতে ঠাই ন পাইবে । এবাবতে হুশিয়ার হামেশা থাকিবে । আদমির জান তুমি কভি না লইবে । নিলে সাজ৷ পাইবার লাএক হুইবে ॥ তোমাদের আগে যত ইনসান আছিল । তাহদের তরে এই বাহ কহ গেল ৷ কিতাবের বিচে আছে এই যে হুকুম ! তোমা সবে এই বাং আছয়ে মালম। আথের কোনই শকশ নিজ ভাই পরে । বেহুদা করয়ে গোত্মা কহিনু তোমারে ৷ বেষক সেইত শকশে জান গুনাগার । হাকিমের কাছে সাজা হুইবে তাহার। আপনার ভাএরে যে আহাম্মক কয় । সাজার লাএক সেতে মজলিসেতে হয়। শুনহ তোমরা সবে আমার বয়ান । আপন ভাএরে যেবা কহিবে নাদান ৷ যেই আগ জলে দেজোখের বিচখানে । সাজার লাএক সেত হবে সেই খানে ॥ তেলাগিয়া কহি শুন পাক সাফ দেলে । কুরবানগাহের কাছে নজর আনিলে । সেখানে ইয়াদে যদি আইসে তোমার । ভাইএর নজদিকে তুমি আছ গুনাগার। কুরবানগাছের কাছে নজর রাখিয়া ! আপোষ করিবে ভাইজার কাছে গিয়া ৷ আপোষ হইলে বাদে সেথা এসে ফের। আপন নজর তুমি চড়াবে আখের । কয়েদীর সাথে যব তক থাক পথে । তবতক রাজীনামা কর তার সাথে ॥ কি জানি কয়েদী যদি ধরিয়া তোমারে । হাকিমের কাছে ফের সূগরদ করে। তাহাতে হাকিম যদি আবার তোমারে । পেয়াদা ডাফিয়া তার দেয় জিম্বা কর্যে । পেয়াদার জিম্বা হৈলে বেষক জানিবে । কয়েদ খানার বিচে তুমি বন্দী হবে । তাহা হৈলে এই বাহ কহি তুসবায়। যবতক দেন। তুমি না কর আদায়। আখেরি কৌড়িটা তক না পারিলে দিতে। পরিবে না নিকালিতে তুমি সেথা হৈতে ॥