পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/১৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
১২৮
ইন্দুমতী।

নানাজাতী আলু চাষ, শাক, শব্জী, মূল—
করিত না কেহ যাহা সেখানে কখন,
জ্ঞানের অভাবে আর অন্ধ বিশ্বাসেতে।
শিখিল মৎস্যের চাষ ফল চাষ আর।
এই রূপে নানাবিধ উপদেশ গুণে
শ্রীবৃদ্ধি হইল গ্রামে,উন্নত সকলে।
 বীরেন্দ্র তাহার সব অনুচর সহ
হইল দেবব্রতের উপাসক এবে।
উপদেশ মত তাঁ’র তাহারা সকলে
আগ্রহে হইল ব্রতী দেশের মঙ্গলে।
দেবব্রত রূপে আর চরিত্রের বলে,
বিনয়,সৌজন্য,শিক্ষা,উপদেশে আর,
গ্রামবাসী নর-নারী হইল আকৃষ্ট,
দেবতার মত তাঁ’রে দেখিতে লাগিল।
 সুশিক্ষার ফল শীঘ্র দেখিতে দেখিতে,
হইল বিস্তৃত গ্রাম হ’তে গ্রামান্তর।
বাড়িতে লাগিল যত কার্য্যের পরিধি
উৎসাহে ভৱিল তত তাদের অন্তর।
 শঙ্কর বিশ্বাস বাবু দেখিল সকল,
শুনিল সকল, এবে হ’ল চমৎকৃত,
নূতন জীবন দেখি সন্তানে তাহার,
যাহার কারণ তিনি ছিলেন শঙ্কিত।