পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/১৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
১৫৪
ইন্দুমতী।

  স্তরে স্তরে উঠিতেছে সুর সুমধুর,
  ঊর্দ্ধে, বহু ঊর্দ্ধে, ভেদি নীল নভঃস্থল,
  রুদ্ধ গতি যত সব জ্যোতিষ্ক মণ্ডল,
  রুদ্ধ শ্বাসে শুনিতেছে মোহিনী সঙ্গীত।
  পূর্ণ বিকসিত, নীল, অসংখ্য উৎপল,
  ভাসে সেই পারাবারে। গন্ধবহ ধীরে
  সুগন্ধ কুসুম গন্ধে করে আমোদিত।
  কোমল রবির কর, সে জ্যোতির দেশে,
  কোমল মহিমাময় সকলি তথায়।
  মধুর কাকলি করি কত রাজহংস
  ভাসিতেছে ইতস্ততঃ। অমল ধবল
  এক রাজহংসে বসি গায়ত্রী জননী,
  লোহিত বরণা মাতা, অংশুমালী করে
  হ’য়ে বিভূষিতা, বেদযুতা, কুশহস্তা,
  বরাভয় অন্য করে, করেন আশীষ।
  ভুলে যাই রোগ শোক, ভুলে যাই জ্বালা
  সংসার ভুলিয়া যাই, অস্তিত্ব আপন,
  সঞ্জীবিত হই ধীরে নূতন জীবনে,
  সকলি নূতন দেখি চারি দিকে আর।
  জানিয়া ঔষধ হেন, কেন এত দিন
  বল নাই ভাই তুমি নিকটে আমার?
দেবব্রত। নাহি বলিবার ছিল অনেক কারণ,