পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/১৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* কবিতাসংগ্রহ { একেতো অধীর অন্ধ, তাহতে রধির । কি করিলে কি হইবে, নাহি পায় স্থির ॥ করিয়া পরমপথে, কণ্টক প্রদাম । শব্দ নিয়া করে গুধু অর্থের সন্ধাম । । ধদ্ধ করি রাক্যব্যুহ কার্য অলঙ্কারে । পুৰাণাদি শাস্ত্ৰ শস্ত্র, রাখে-ধারে ধারে । পরস্পর মত্ত সবে, রিচার-সমরে । কিসে জয়লাভ হয়, এই অtশা করে ॥ বচনের স্বত্র তুলে, র্যাকুল চিস্তায় । পরম ভাবের তারে, অভার ঘটায় ॥ কিছুমাত্র নাহি লয়, ভিতরের সার । । শাস্ত্রের সত্তাব ভেঙে, একে করে আর u বোঝা বোঝা পুথি পড়ে, মর্শ নাহি লয় । মিছে পোড়ে কি হইরে, নাছি ফলোদয়।। বৃথা পরিশ্রম করে, হরে আয়ুধন । অবোধের পাঠ আর , অন্ধের দর্পণ ॥ বুদ্ধিমানে শাস্ত্র প্রস্তুে, তত্ত্ব লয় তার । অবোধে কি পাবে তত্ত্ব, তত্ত্ব কোথা তার ? শব্দবোধে শুধু হয়.বিদ্যার প্রকাশ । সংসারের মোহ তায়, নাহি হয় মাশ ॥ &