পাতা:উৎসর্গ-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।


রৌদ্র-মাখানো অলস বেলায়
তরুমর্মরে ছায়ার খেলায়।
কী মূরতি তব নীলাকাশশায়ী
নয়নে উঠে গাে আভাসি!
হে সুদূর, আমি উদাসী।।
ওগাে সুদূর, বিপুল সুদূর, তুমি যে
বাজাও ব্যাকুল বাঁশরি-
কক্ষে আমার রুদ্ধ দুয়ার,
সে কথা যে যাই পাশরি।

[মাঘ-ফাল্গুন ১৩০৯]


কুঁড়ির ভিতরে কাঁদিছে গন্ধ অন্ধ হয়ে,
কাঁদিছে আপন-মনে
কুসুমের দলে বন্ধ হয়ে
করুণ কাতর স্বনে।
কহিছে সে, ‘হায় হায়,
বেলা যায়, বেলা যায় গাে,
ফাগুনের বেলা যায়।’

ভয় নাই তাের, ভয় নাই ওরে, ভয় নাই,
কিছু নাই তাের ভাবনা।

১৯