পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র (প্রথম বর্ষ) - নিখিলনাথ রায়.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সাময়িক প্ৰসঙ্গ । saoje রুষ জাপানযুদ্ধ-প্রাচ্য ভূখণ্ডের প্রান্তভাগে জলে ও স্থলে যে অগ্নি প্ৰজলিত হইয়াছে, তাহ সহজে নির্বাপিত হইবে কিনা বলা যায় না। এই অগ্নি প্ৰাচ্য ও প্রতীচ্যের সংঘর্ষণে উৎপন্ন হইয়াছে, সুতরাং সহসা ইহার নির্বাণের আশা নাই। চিরশান্ত প্ৰশান্ত মহাসাগর এই অগ্নির প্রভাবে উত্তপ্ত ও বিক্ষোভিত হইয়া উঠিয়াছে। কতদিনে যে এই অগ্নির উপর শান্তিবারি নিপতিত হইবে তাহা সেই শান্তিময়ই বলিতে পারেন। এ অগ্নি জ্বলিল কেন ? রুসিয়ার বিশ্বগ্রাসিনী লালসার সহিত জাপানের নবদীপ্ত উচ্চাশার সংঘর্ষ উপস্থিত হওয়ায় যে এই অগ্নি প্ৰজ্বলিত হইয়া উঠিয়াছে, সে কথা বোধ হয় নূতন করিয়া বলিতে হইবে না। কিন্তু আমাদের আর একুটা কথা মনে হইয়া থাকে। আমরা মনে করি, কেবল রুসিয়ার লালসার সহিত জাপানের উচ্চাশার সংঘর্ষ নহে, কিন্তু প্রতীচ্যের জগদুজ্জ্বলকর মহাশানে প্রাচ্যের মলিনতাময় ছুরিকাখানি খৃষ্ট হওয়ায় যেন এই অগ্নির নির্গম হইয়াছে। কথাটা একটু পরিস্কার করিয়া বলা যাউক । যে প্ৰাচ্য সভ্যতা বহুদিন হইতে মলিনতা প্ৰাপ্ত হইয়াছিল, তাহাকে আবার পাশ্চাত্য সভ্যতার সাহায্যে উজ্জ্বল করিতে চেষ্টা করা হইতেছে ; কিন্তু তাহার ফল কি দাড়াইল ? ইহাতে যে কেবল একটি আর একটি কত্ত্বক উজ্জ্বল হইয়া উঠিল তাহা নহে, অধিকন্তু সেই সংঘর্ষণে এমন একটুকু অগ্নি জ্বলিয়া উঠিল যে, তাহার তাপ প্রাচ্য ও প্রতীচ্য উভয়েরই অনুভবগোচর হইয়া উঠিতেছে। প্রতীচ্যের মধ্যে যে জাতি তাপটি অধিক মাত্রায় অনুভব করিয়াছে, সে অগ্নিটিকে যষ্টির আঘাতে নিৰ্বাপিত করার চেষ্টা করিয়া তাহাকে আরও বাড়াইয়া তুলিয়াছে তাই সহজে সে অগ্নি নিৰ্বাপিত হইতেছেন। জাপানের জাতীয় অভু্যুত্থানের