পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/১৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পটুগীজ প্রাধান্যের ধ্বংস । S \, a ইহা সে কালের কথা । বৰ্ত্তমান যুগেও তাহার শ্যামল ক্ষেত্রে যাহারা সমাগত হইয়াছে, তাতারা আজিও তাহার মায়া পরিত্যাগ করিতে পারে। নাই । কোনও কোনও জাতির এদেশে নামশেষ হইলেও, তাঙ্গাদের চিহ্ন আজিও তাহদের কথা স্মরণ করাইয়া দিতেছে । কলম্বস কর্তৃক আমেরিক আবিষ্কারের পর ভারতবর্ষের সহিত বাণিজ্য করিবার উদ্দেশে পটুগালের অধিপতি অত্যন্ত ব্যাকুল হইয়া উঠেন । তিনি ভাস্কোডিগমাকে একটি নূতন জলপথের আবিষ্কারের জন্য প্রেরণ করেন। পঞ্চদশ শতাব্দীর শেষ ভাগে গামা অনেক বাধা বিন্ন অতিক্রম করণীয়া উত্তমাশা অন্তরীপ অতিক্রমের পর ভারতবর্ষের মালাবার উপকূলস্তি কালিকট নগরে উপস্থিত। হন । মালাক্কা প্রভৃতি স্থানে পটুগীজগণ বাণিজ্যবিস্তারে সচেষ্ট হয় । st qts উপকুলবন্ত্ৰী গোয়। তাছাদের প্রধান স্থান ত ইয়া উঠে । অদ্যপি গোয়। পটুগীজদিগেরই অধীন আছে। দক্ষিণ প্রদেশে বাণিজ্য করিতে করিতে ক্ৰমে যখন সোণার বাঙ্গলের কথা তাহদের কর্ণগোচর শুইল, তখন তাহারা তথায় উপস্থিত হই। পার জন্য চেষ্টা করিতে লাগিল । ষোড়শ শতাব্দীর মধ্যভাগে পটুগীজগণ বাঙ্গল!ায় পাণিজ্য-ব্যাপদেশে উপস্থিত হুইয়াছিল। সেই সময়ে চট্টগ্রাম ও সপ্তগ্রাম বাঙ্গলার দুইটি প্ৰসিদ্ধ বন্দর ছিল । চট্টগ্রামে সকল প্রকার জাহাজের গতায়াতের সুবিধা ছিল, তাই পটুগীজেরা তাহার ‘পোটো গ্ৰাণ্ডা” বা ‘বৃহৎ স্বৰ্গ” ও সপ্তগ্রামের নাম ‘পোটো পেকিনো” বা “ক্ষুদ্র স্বৰ্গ” আখ্যা প্ৰদান করিয়াছিল । চট্টগ্রাম প্রদেশেই সাধারণতঃ ইহার উপ'নবেশ সংস্থাপন করে : ক্রমে তাহারা আরাকান পৰ্য্যন্ত ধাবিত হয় । বঙ্গোপসাগরে ইহাদের একরূপ একাধিপত্য ছিল। পটুগীজ দিগের অনুসরণ করিয়া ক্ৰমে ওলন্দাজ, ইংরেজ, ফরাসী প্ৰভৃতি অন্যান্য ইউরোপীয় জাতি ও বঙ্গদেশে বাণিজ্যের জন্য সমাগত হয়, এবং ইতাদের সহিত প্ৰতিদ্বন্দ্বিতায় পটুগীজগণ বাণিজ্য ব্যাপারে অক্ষম হইয়া পড়ে। ক্রমে তাহারা বাণিজ্য পরিত্যাগ করিয়া