পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/৩১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিক্রমপুরে বৌদ্ধ-প্রভাব । \0 o Nà দ্বীপে উপস্থিত হইলেন এবং তথায় দ্বাদশবর্ষাকাল বিশুদ্ধ বৌদ্ধধৰ্ম্ম শিক্ষা লাভ করিয়া, মনোবৃত্তির উপর যথেষ্ট প্ৰভুত্ব লাভ করেন। তৎপরে তিনি বজসন্থ , বোধগয়া ) মহাবোধির মঠে আসিয়া বাস করেন। এই সময় তিনি পাণ্ডিত্য ও ধৰ্ম্মগৌরবে চরমোৎকৰ্ষ লাভ করেন এবং তঁহার নাম সমস্ত ভারতবর্ষময় রাষ্ট্র হয়। পরিশেষে তিনি তিব্বতে চলিয়া যান, সেখানে লামাদিগের সহিত ধৰ্ম্মালোচনা ও ধর্শ্ব প্রচারে ব্ৰতী থাকিয়া সমাধি লাভ করেন । তথায় অদ্য ও ঠাই।ার সমাধি বর্তমান আছে । তিব্বতবাসিগণের তিনি এরূপ শ্রদ্ধা আকর্ষণ করিয়াছিলেন যে, অদ্যপি প্ৰসিদ্ধ বৌদ্ধ গুরু। লামাগণ র্তাহার নামে মস্তক অবনত করেন। এই দীপাঙ্করের সময় বিক্রমপুরে সম্ভবতঃ বৌদ্ধধৰ্ম্ম খুব প্ৰতিষ্ঠা লাভ করিয়াছিল । বঙ্গদেশীয় পালবংশীয় নৃপতি বৃন্দ তাহার পরম ভক্ত ছিলেন । তাহার জন্মস্থান বজ্রযোগিনীর অৰ্চত্তর, চূড়াইল, সুখবাসপুর, দেবাসার প্রভৃতি গ্রামে দেউলবাড়ী অবস্থিত আছে, ইঠাতে কি অনুমিত হয় না যে, ঐ সব দেউল বাড়ী কোন না কোন প্রকারে বৌদ্ধধৰ্ম্ম সংসৃষ্ট ছিল ? শ্ৰী সুখবিন্দু সেন । ৭৬ সালের মন্বন্তর । ( পূৰ্ব্ব প্রকাশিতের পর ) ১৭৭০ খৃঃ। শেষ ভাগে, বিভিন্ন স্থান হইতে সরকারী কৰ্ম্মচারিগণ আপনাদের এলাকাধীন স্থানের অবস্থা কাউন্সিলের গোচর করেন । আমরা নিয়ে কয়েকটী বিশেষ স্থানের সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিতেছি ;-