পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/১০১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুত্র তিনটাকে স্বশিক্ষিত করিতে বিপূমাত্রও ক্রটা করেন নাই। অবশেষে জ্যেষ্ঠ রামসুন্ধর বরপ্রাপ্ত হইয়া, পঞ্চকোটের দেওয়ান হন এবং সাংসারিক অস্বচ্ছলতা দূর করেন। অতঃপর তিনি ও মধ্যম মাণিক্যচজ ১৯৭৯ হিজরীতে দিল্লীর সম্রাটের নিকট হইতে, রায় উপাধি ও এক হাজারী মনসবদারের পদ প্রাপ্ত হন । মহারাজা নবকৃষ্ণ দেব বাহাদুর, ইহাদিগেরই কনিষ্ঠ সহোদর। 鬱 নৰকৃষ্ণ ১১৩৯ সালে (১৭৩২ খ্ৰীঃ আত্ৰে ) মুড়াগাছার পৈতৃক-বাটতে জন্মগ্রহণ করেন। কেহ কেহ বলেন গোবিন্দপুরেই তাহার জন্ম হয়। বাল্যকালে জননীর যত্নে ইনি, আরবী, পারসী, ७६ ७ हे९ब्रांडी ভাষা শিক্ষা করিয়াছিলেন। বয়ঃপ্রাপ্ত হইয়া অর্থোপার্জন চেষ্টায়, ইনি প্রথমে কলিকাতায় ধনকুবের লক্ষ্মীকান্ত ধরের (নকু ধর । সহিত পরিচিত হন এবং তঁহারই চেষ্টায় কলিকাতায় ইংরাজ মহলেও পরিচিত হন। কিন্তু নবকৃষ্ণের বংশধরেরা এ কথা অস্বীকার করেন। এই সময়ে ওয়ারে হেষ্টংস ইষ্ট-ইণ্ডিয়া কোম্পানীর অধীনে সামান্ত কেরাণী ছিলেন, তিনি নবকৃষ্ণকে র্তাহার পারসী-শিক্ষক নিযুক্ত করেন। হেষ্টিংস ও নবকৃষ্ণ সমবয়স্ক ছিলেন বলিয়া, তাহাদিগের মধ্যে বিশেষ মিত্ৰত জন্মিয়াছিল। ইহার তিন বৎসর পরে হেষ্টিংস সাহেব কাশিমবাজারের কুঠতে প্রেরিত হইলে, নবকৃষ্ণও র্তাহার সঙ্গে যান । কাশীমবাজারে বাসকালে, নবকৃষ্ণ ছেটিংসের দূতরূপে মধ্যে মধ্যে কলিকাতার কৌলিলে আসিতেন, স্বতরাং নবাব সিরাজউদৌলাকে পদচ্যুত করিবার জন্ত প্রথমে যে ষড়যন্ত্র হয়, তিনি তাহ সম্পূর্ণই অবগত ছিলেন। এই ষড়যন্ত্র সংবাদ অবগত হইয়া, নবাব যখন কলিকাতা অক্ষমঞ্চ, করিতে আইসেন, তখন তিনি কাশীম-বাজারের কুঠী লুণ্ঠন করিয়া হেষ্টিংস প্রভৃতি কুঠীয়াল ও রেসিডেন্টকে বন্দী করেন। নবকৃষ্ণ এই সময়ে, হেষ্টিংসকে কাস্তবাবুর সহিত পরিচিত করিয়া দিয়া, স্বয়ং কলিকাতায় জালিয়। ইংরাজদের এই দুঃসংবাদ দেন। নবকৃষ্ণেরই সহায়তায়, কলিকাতার ইংরাজগণ পূৰ্ব্ব হইতে সতর্ক হইবার অবসর পাইয়াছিলেন। , অল্পকাল পরেই নবাব কলিকাতায় উপস্থিত হইয়া, চিৎপুরের মধ্যে ছাউনী স্থাপন করিলেন। ইহার অল্পদিন পূৰ্ব্বে, মুরশিদাবাদে নবাবের बिक्रटक भांद्र यको बाक्लयज श्हेब्राहिण। ब्रांज ब्रांजवडङ, ५३ সময়ে कनिकाऊाब ३ब्राजशार्षद्र निकई थरुवन एउ cअहन कहबम**