পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/২১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


       নমো ব্রম্ভসুতাভ্যশ্চ পবিত্র্যাভ্যো নমো নমঃ ।।
 কুলের কলঙ্ক যেই অধর্ম্ম আচার।
 হেনজনে মারিতে সহায় হৈল তার।।
 যুধিষ্ঠির বলে ভাই দেখ দুর্য্যোধন।
 এইরূপ সভামধ্যে আছে কোন্ জন।।
 যদু মহাকুলে জন্ম কৃষ্ণের কুমার।
 কৃষ্ণপুত্রে দিব কন্যা কুলের আচার।।
 উহারে না দিয়া কন্যা আর কারে দিবা।
 বর পূর্ব্বা হৈলা কন্যা কলঙ্ক হইবা।।
 কে আর করিবা বিভা পৃথিবীমণ্ডলে।
 সভাতে দেখিল শাম্ব করিলেন কোলে।।
 দুর্য্যোধন বলয়ে তোমার নাহি দায়।
 এইমত গৃহে পাছে রাখিব কন্যায়।।
 মারিব দুষ্টেরে তুমি ছাড় শীঘ্রগতি।
 ভীম বলে দুর্য্যোধন ছন্ন হৈল মতি।।
 কি দেখিয়া এত গর্ব্ব হইল তোমার।
 কৃষ্ণপুত্রে মারিবা যে অগ্রেতে আমার।।
 কে আসে আসুক দেখি তাহার বদন।
 গদাঘাতে দেখাইব যমের সদন।।
 এত বলি গদা লৈয়া বীর বৃকোদর।
 অবিরত ঘুরায় সে মস্তক উপর।।
 ভীমের বচন শুনি দুর্য্যোধন ক্রোধে।
 কাড়ি লহ বলি আজ্ঞা দিল সব যোধে।।
 দুর্য্যোধন আজ্ঞাতে যতেক সহোদর।
 হাতে গদা করি অব ধাইল সত্বর।।
 ব্যাঘ্রের সম্মুখে যেতে লাগে যেন শঙ্কা।
 দেখি ধায় বৃকোদর সদা রণডঙ্কা।।
 ভীষ্ম দ্রোণ কহে দাঁড়াইয়া মধ্যস্থানে।
 আপনা আপনি তাত দ্বন্দ্ব কর কেনে।।
 বন্দী করি রাখ শাম্বে আমার গৃহেতে।
 বুঝিয়া ইহার দণ্ড করিব পশ্চাতে।।
 দুর্য্যোধন বলে তাত কৃষ্ণের এ সুত।
 শ্রুতমাত্র যদুবলে আসিবে অচ্যুত।।
 ইহারে এক্ষণে যদি প্রাণেতে মারিবে।
 গোবিন্দ করিলে ক্রোধ অনর্থ হইবে।।
 যুদ্ধ করি গোবিন্দে করিব পরাজয়।
 তবেত মারিব একে ঘরেতে আছয়।।
 যুধিষ্ঠির বলিলে ভাল ভাল বলি।
 দুর্য্যোধন বলে, দেহ চরণে শিকলি।।
 চরণে নিগড় দিয়া নিল গুরু দ্রোণ।
 নিজ নিজ গৃহে সব করিল গমন।।
       ------
  শাম্বের বন্ধন সংবাদ লইয়া নারদের গমন।
   বন্ধনে রহিল শাম্ব কৃষ্ণের নন্দন।
 বার্ত্তা দিতে চলেন নারদ তপোধন।।
 কহেন গোবিন্দ প্রতি গদগদ কথা।
 শুনহ গোবিন্দ শাম্ব পুত্রের বারতা।।
 দুর্য্যোধন দুহিতার স্বয়ম্বর কালে।
 স্বয়ম্বর স্থানে তারে শাম্ব হরি নিলে।।
 যুদ্ধ করি বন্দী তারে কৈল ইন্দ্রজালে।
 কতেক কহিব দেব যতেক মারিলে।।
 কাটিতে লইয়া গেল দক্ষিণ মশানে।
 যুধিষ্ঠির রাখিলেন দিয়া ভীমসেনে।।
 অনেক করিল দ্বন্দ্ব তাহার সহিতে।
 বদ্ধ করি রাখিয়াছে ভীষ্মের গৃহেতে।।
 ক্ষুধায় আকুল শাম্ব আর নানা ক্লেশ।
 বিবিধ অস্ত্রের ঘাত প্রাণ মাত্র শেষ।।
 তোমারে যতেক গালি দিল দুর্য্যোধন।
 আমি কি কহিব সব করিয়া বর্ণন।।
 শুনি কৃষ্ণ হইলেন ক্রোধেতে অস্থির।
 সেইক্ষণে যদুসৈন্য হইল বাহির।।
 এই সব বৃত্তান্ত শুনিয়া হলধর।
 দুর্য্যোধন হেতু তাপ করেন বিস্তর।।
 ক্রোধে যাইতেছে কৃষ্ণ সাজি সেনাগণে।
 সবংশেতে মারিবেন আজি দুর্য্যোধনে।।
 এত চিন্তি আপনি রেবতীপতি গিয়া।
 শ্রীপতিরে কহিছেন বিনয় করিয়া।।
 তুমি তথাকারে যাবে কিসের কারণ।
 আমি গিয়া পুত্রবধু আনিব এক্ষণ।।
 ইত্যাদি অনেকবিধ কৃষ্ণে বুঝাইয়া।
 আপনি গেলেন রাম কৃষ্ণেরে রাখিয়া।।
 হস্তিনানগরে রাম হৈয়া উপনীত।
 দুর্য্যোধনে দুত পাঠাইলেন ত্বরিত।।