পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/২৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


acপৰ্ব্ব । ] প্রণাম মন্ত্র—নবীনাং হেমগৌরাঙ্গীং পূর্ণানন্দবতীং সতীং । כי כיסא এrমর কুদিন হয় দৈবের ঘটনে । =rর সঙ্গে করি তাই আসিয়াছি বনে ॥ শুন শনি কহিলেন বুঝেছি বিস্তর । লে ভাল বেতাল সিদ্ধ আছিল তোমার ॥ ,'র সবে কোথা গেল বিপত্তি সময় । পুথি গেল মন্ত্রীবর্গ কহ মহাশয় ॥ বগুড় বলে ভাই বন্ধু যত পরিবার। ‘বপত্তি সময় সঙ্গী নহে কেহ কণর ॥ আসার সংসার এই মায়ামদে মজে । সকল করয়ে নষ্ট ধৰ্ম্মপথ ত্যজে ॥ সন্মার আমার বলে কেহ কার’ নয় । *স মতে কস্য পিতা শাস্ত্রে এই কয় ॥ * নর রক্ষা হেতু যদি রাখে ধৰ্ম্ম । আপনার নাশ হেতু করয়ে কুকৰ্ম্ম ॥ সামীর সর্বদা হয় ধৰ্ম্মেতে বাসনা । .rয়মনোবাক্যে এই করি হে কামন ॥ শুনি শনি হাসি কহিলেন পুনর্বার । মতি জর্ণতর নৌকা দেখহ আমার ॥ সুইজন হৈ’ল যেতে পারে পরপারে । •নজন ভগ্ন তরি পারে কি না পারে ॥ *পনি সুবুদ্ধি বট দেখ বর্তমান । বিবেচনা করিয়া করহ অনুমান ॥ *াধারে লইয়। অগ্রে পার হও তুমি । “স্ত যদি লও তবে কুঁথি রাখ ভুমি ॥ শুনিয়া নাবিক বাক্য করেন বিচার । Fপ: পার করি আগ্রে শেষে হৈব পার ॥ *"ঙ্গ রাণী দুইজনে ধরিয়ু কাথায় । হন তুলিয়া দেন শনির নৌকায় ॥ * ল’য়ে সূৰ্য্যপুত্র বাহিয়া চলিল । డా দেখিতে মায়ানদা শুকাইল ॥ Fবংস নৃপতি খেদে করে হায় হায় । সকল দেখিলাম ভজবাজী প্রায় ॥ কিনাম এ সকল শনির চাতুল্লা । བཱ་ཝཱ་ করি সর্ব ধন করিলেক চুরি ॥ -Fখলে সাক্ষাতে রাণী বঞ্চনা শনির । Pকল হৃদয় তার নাহি হয় স্থির ॥ বহু কষ্টে গমন করিয়৷ ছুইজন । প্রবেশ করেন গিয়া চিত্ৰধ্বজ বন ॥ হেনকালে সেই স্থানে হইল প্রভাত । পূর্বদিকে উদয় হইল দীননাথ । ক্ষুধাৰ্ত্ত তৃষ্ণাৰ্ত্ত দোহে কাতর হৃদয় । রম্যস্থান দেখি রাণী নৃপতিরে কয় ॥ চলিতে ন পারি প্রভু করি নিবেদন । বিশ্রাম করছ এই স্থানে কিছুক্ষণ ॥ দিব্য জলে স্থলে নান। পুষ্প বিকসিত ! এই স্থানে স্নান কর আছ ত ক্ষুধিত ॥ রমণী কাতর দেখি ব্যথিত অন্তর । বন হৈতে ফল পুষ্প আনেন সম্বর ॥ উভয়ে করিয়া স্নান ইষ্টপূজা করি । কুড়াইয়া আনিলেন সুপক্ক বদরী ॥ উভয়ে খাইল জল শ্রাস্তি হ’ল দূর । গমন করিতে শক্তি হইল প্রচুর ॥ নান। স্থান এড়াইল পৰ্ব্বত কানন । নদনদী কত শত বন পর্য্যটন । তমাল পিয়াল শfল বৃক্ষ নানাজাতি । মল্লিক। মালতী বক চম্পক প্রভূতি ॥ বদরা খর্জুর জয় পনশ রসাল । নারিকেল গুবাক্ষ দাড়িম্ব অপর তাল ॥ জারুল পারুল বেল পিয়জু অগুরু । রক্তসার চন্দন তমাল দেবদারু ॥ ইত্যাদি অনেক বৃক্ষে নানা পক্ষিগণ । ” ব্যfস্থাদি ষ্টিংস্ৰক কত করিছে ভ্রমণ ॥ মৃগেন্দ্র গজেন্দ্র উষ্ট্র গণ্ডার কাসর । ঘোটক গোধিকা খর ভল্লুক শূকর ॥

  • শত শত পশু দেখি বনের ভিতর ।

বিকট দশন দেখি কাতি ভয়ঙ্কর ॥ ভূচর খেচর কত কে করে গণন । দেখিয়া চিন্তিত রাজ্ঞা অতি ঘোর বন ॥ মনে মনে বলে রক্ষা কর লক্ষীপতি । ংসারের সার তুমি অগতির গতি ॥ দয়া কর দীননাথ করুণানিদান । সমুহ সঙ্কটে প্রভু কর পরিত্রাণ ॥