পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৪৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఇన• শবরূপ-মহাদেব হৃদরোপার-সংশ্বিতাং। এ সব বচন আমি করাব স্মরণ । রণমধ্যে আমি তোরে পাইব যখন ॥ খেতে শরীর তোর করিব বিদার । নৰ্ম্মল কৰিব সখী যতেক তোমার ॥ শত সহোদর সহ লোটাইব ক্ষিতি । ইহা না করিলে যেন না পাই সদগতি ॥ এতেক কহিয়া তবে যায় বৃকোদর । ংহাসন হইতে উঠিল কুরুবর ॥ ইরূপে চলি যায় পবন নন্দন । ইরূপে হাসিয়া চলিল দুৰ্য্যোধন ॥ নউটিয়া বৃকোদর পাছু পানে চায় । উপহাস জানিয়া ক্রোধেতে কম্প কায় ॥ র দুষ্ট উচিত ফল পাইবি ইহার । স কালে এ সব কথা স্মরাব তোমার ॥ পদ দিয়া এইরূপে তোমার মস্তকে । লিয়া যাইবার কালে স্মরণব তোমাকে ॥ তারে সংহারিব তোর যত বন্ধু সখা । পত ভাই তোমার মারিব আমি একা ॥ এত বলি বৃকোদর নিঃশব্দেতে রয় । সভামধ্যে ডাকিয়ী বলেন ধনঞ্জয় ॥ যতেক প্রতিজ্ঞা কর সব অকারণ । ত্রয়োদশ বৎসরান্তে যদি নহে রণ ॥ ত্রয়োদশ বৎসরান্তে যদি পাই রণ । তবেত তোমার আজ্ঞা করিব পালন ॥ কর্ণেরে মারিব যেন পতঙ্গের মত । সহায় সম্বন্ধী তার হবে আর ফত ॥ হিমাদ্রি টলিবে, সূৰ্য্য ত্যজিবে কিরণ। তথাপি প্রতিজ্ঞা মম না হবে লঙ্ঘন ॥ শুন সব রাজগণ আছ সভাস্থলে । আজি হৈতে ত্রয়োদশ বৎসরাস্ত কালে ॥ কৌতুক দেখিবে সবে যুদ্ধ হয় যদি । কৌরবের শোণিতে পূরাব নদনদী ॥ কদাচিত দিব্যজ্ঞান জন্মে জুর্য্যোধনে । বিনত হইয়া পড়ে ধর্মের চরণে ॥ তবে ত প্রতিজ্ঞ যত সকল বিফল । আনন্দে বঞ্চিবে তবে কৌরব সকল ॥ [ মহাভারত । তবে সহদেব কহে চাহিয়া শকুনি । | রে দুষ্ট গান্ধার পুত্ৰ শুন এক বাণী ॥ কপটেতে পাশা তুই কুরিলি রচন । পাশা নহে প্ৰহারিলি তীক্ষ অস্ত্রগণ ॥ ভীমের আদেশ মম নহিবে লঙ্ঘন"। অবশ্য আমার হাতে তোমার নিধন ॥ হেনকালে নকুল বলয়ে সভ্যস্থলে । এবে মন দিয়া শুন নৃপতি সকলে ॥ ধৰ্ম্মপুত্ৰ-আজ্ঞা আর কৃষ্ণার সম্মতি । নিঃশেষ করিব কুরুসৈন্য সেনাপতি ॥ এত বলি চলিলেন পাণ্ডুপুত্ৰগণ । ধৃতরাষ্ট্র স্থানে যায় বিদায় কারণ ॥ মহাভারতের কথা অমৃত-সমান । শুনিলে নিষ্পাপ হয় জন্মে দিব্যজ্ঞান ॥ মস্তকে বন্দিয়া ব্রাহ্মণের পদরজ । কহে কাশীদাস গদাধর দাসা গ্রজ ॥ পাণ্ডবদিগের বলে গমনোলোগ । বিনয় করিয়া কহিছেন ধৰ্ম্মরায় । ধৃতরাষ্ট্র আদি যত ছিলেন সভায় ॥ ভীষ্ম দ্রোণ কৃপাচার্য্য বিদুর সঞ্জয় । সোমদত্ত ভূরিশ্রবা পৃষত-তনয় । একে একে সবাকারে বলে ধৰ্ম্মরায় । আজ্ঞা কর বনে যাহ মাগি যে বিদায় ॥ লজ্জায় মলিন সবে মাথ ন তুলিল । মনে মনে সৰ্ব্বজন কল্যাণ করিল ॥ বিদুর কহেন তবে সজল নয়নে । খণ্ডাইতে কেবা পারে দৈব নির্ববন্ধনে ॥ কতদিন কষ্টভোগ করহ কাননে । কুন্তীরে রাখিয়া যাও আমার ভবনে ॥ একে বৃদ্ধ। আর তাহে রাজার কুমারী। যোগ্য নহে কুন্তী এবে হবে বনচারী ॥ ধৰ্ম্ম বলিলেন তুমি জনক সমান । তব আজ্ঞা কুরুকুলে কে করিবে আন ॥ বিশেষ পাণ্ডুর গুরু জানে সৰ্ব্বজন । ! মম শক্তি নহে তাহা করিতে হেলন ॥