পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৪৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88や2 গোপীনাং নয়নোৎপলচ্চিত তনুং গো-গোপসম্মাবৃতং । [ মহাভারত । এই যে পুরুষ আসে কন্দৰ্প আকার । কহ কছু ইহাকে কি দেখিয়াছ আর ॥ ইন্দ্র চন্দ্র সূৰ্য্য সম প্রভা কলেবর। ঐরাবত সম গতি পরম সুন্দর ॥ কাঞ্চন পৰ্ব্বত যেন ভুমে শোভা পায়। আমার সভায় আসুে বুঝি অভিপ্রায় ॥ ক্ষত্ৰিয় লক্ষণ সব ব্রাহ্মণের নয় । রাজচক্রবর্তী প্রায় সৰ্ব্ব তেজোময় ॥ যে কাম্য করিয়া ইনি আসিছেন হেথা । ক্ষত্র হৌক দ্বিজ হোঁক করিব সৰ্ব্বথা ॥ এত বিচারিতে উপনীত ধৰ্ম্মরাজ । কল্যাণ করিয়া দাণ্ডাইল সভামাঝ ॥ নমস্কার করিয়৷ বিরাট মৃদুভাষে । বিনয় পূর্বক ধৰ্ম্মরাজেরে জিজ্ঞাসে ॥ _ হবিষ্য আহারী আমি শয়ন ভূমিতে । কেহ যদি মাগে তবে লব তোমা হৈতে ॥ হেনমতে তথায় রহেন যুধিষ্ঠির । কতক্ষণে উপনীত বৃকোদর বীর । হাতেতে করিয়া চাটু মৃগপতি গতি । হেমন্ত পৰ্ব্বত প্রায় কিবা যুথপতি। সভাতে প্রবেশে যেন বাল সূর্য্যোদয় । দেখি বিরাটের মনে হইল বিস্ময় ॥ রাজার সভাতে উপনীত বৃকোদর । জয় হ’ক বলিয়া তুলিল দুই কর ॥ চতুর্বর্ণ শ্রেষ্ঠ আমি জাতিতে ব্রাহ্মণ । গুরু-উপদেশে পারি করিতে রন্ধন ॥ s আম সম রন্ধনে নাহিক সূপকার । মল্লযুদ্ধাভ্যাস কিছু আছয়ে আমার ॥ কে তুমি কোথায় বাস এলে কোথা হৈতে। ; কোন কুল গোত্রে জন্ম কেমন বংশেতে ॥ যে কণম্য তোমার মাগি লহ মম স্থান । রাষ্ট্র পুর গৃহ দণ্ড ছত্র আর যান ॥ তোমারে দেখিয়া মম হেন মনে লয় । যাহা মাগ তাহ দিব করেছি নিশ্চয় ॥ এত শুনি বলিলেন ধৰ্ম্ম অধিকারী । বৈরাগ্য আমার গোত্র কঙ্কনামধারী ॥ যুধিষ্ঠির রাজার ছিলাম আমি সখা । কিছু ভেদ নাহি ছিল যেন আত্মা একা ॥ শক্ৰ নিল রাজ্য, বনে গেল পঞ্চভাই। র্তার সম লোক আমি চাহিয়৷ বেড়াই ॥ পাশা খেলাইতে আমি বিশেষ নিপুণ । হেথা আইলাম রাজা শুনি তব গুণ ॥ এত শুনি মৎস্যরাজ বলয়ে হরিষে । সদাই আমার বাঞ্ছা এমত পুরুষে ॥ দৈবযোগে মম ভাগ্যে তোমারে পাইমু । রাজ্যধন তোমারে সকল সমাপনু ॥ আমার সদৃশ হৈয়া থাকহ সভায় । যত মন্ত্রী সবাই সেবিবে তব পায় ॥ এতগুনি বলিলেন ধৰ্ম্মের নন্দন । কোন দ্রব্য আমার না হয় প্রয়োজন ॥ | ! i এত শুনি মৎস্যপতি বলেন বচন । সৃপকার তোমারে না লাগে মম মন ॥ কুবের ভাস্কর যেন শোভিয়াছে ভূমি । সর্বক্ষিতি পালনের যোগ্য হও তুমি ॥ সূপকারযোগ্য তুমি নও কদাচন। এত শুনি বৃকোদর বলিল বচন ॥ যুধিষ্ঠির রাজার ছিলাম সুপকার । আমাতে বড়ই প্রতি আছিল রাজার। সিংহ ব্যাঘ্ৰ বৃষ আর মহিষ বারণ । যাহা সহ যুঝাইবা দিব আমি রণ ॥ মল্লযুদ্ধে আমা সম নাহিক মানুষে । আমারে পুষিল রাজা কৌতুক বিশেষে । বল্লভ আমার নাম দিল ধৰ্ম্মরাজ । তাহার অভাবে ভ্ৰমি পৃথিবীর মাঝ ॥ বিরাট কহিল এতে না হয় সংশয় । তোমার এ সব কথা চিত্র কিছু নয় ॥ সসাগর। পৃথিবী শাপিতে যোগ্য তুমি । যে কামনা তোমার অবশ্য দিব আমি । আমার আলয়ে যত আছে স্পকার । সবাকার উপরে তোমার অধিকার ॥ এত বলি রন্ধন-গৃহেতে পাঠাইল । এমতে রহিল ভীম কেহ না জানিল ।