পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


      রত্নাকল্পোজ্জলাঙ্গং পরশু মৃগবরাভীতি-হস্তং প্রসন্নং।
 
 ধর্ম্মেতে করিল সবে প্রজার পালন।
 রাজ্যেতে নাহিক আর অকাল মরণ।।
 নিজ নিজ বৃত্তিতে করেন সবে কর্ম্ম।
 ব্রাম্ভণ, ক্ষত্রিয়, বৈশ্য, শূদ্রের যে ধর্ম্ম।।
 পাপের প্রসঙ্গ নাহি ধর্মেতে তৎপর।
 সাগর অবাধ ক্ষিতি পূর্ণ হৈল নর।।
 স্বর্গের বৈভবপূর্ণ হৈল ক্ষিতিমাঝ।
 রাজগণ হইল দ্বিতীয় দেবরাজ।।
 এত দেখি যতেক দানব দৈত্যগণ।
 দেব হতে পরাভব হইল যখন।।
 সুখভোগস্থান ক্ষিতি দেখি মনোরম।
 ভোগের কারণে নিল মনুষ্য-জনম।।
 জন্মিয়া পৃথিবী মধ্যে হইল প্রবল।
 তপ, জপ, যজ্ঞ, দান, হিংসিল সকল।।
 হিংসিকের ভার ধরা সহিত না পারে।
 দণ্ডবৎ করে গিয়া ব্রম্ভার গোচরে।।
 ক্ষিতির রোদন দেখি দেব প্রজাপতি।
 জানিয়া সকল তত্ত্ব সান্তাইল ক্ষিতি।।
 না কর ক্রন্দন তুমি স্থির কর মন।
 উপায় তোমার কার্য্য করিব সাধন।।
 তোমার কারণে আমি সব দেবগনে।
 নররূপে জন্মাইব অসুর-নিধনে।।
 এত বলি পৃথিবীকে করিল মেলানি।
 দেবগণ লৈয়া যুক্তি করে পদ্মযোনি।।
 প্রবল অসুরগণে হৈল ক্ষিতি ভার।
 হরি বিনা কার শক্তি করিতে সংহার।।
 চল সবে ইহা জানাইব নারায়ণে।
 এত বলি ব্রম্ভা সহ যত দেবগণে।।
 ঊর্দ্ধবাহু করি স্তুতি করে প্রজাপতি।
 কৃপা কর নারায়ণ অনাথের গতি।।
 সর্ব্বভূত আত্মা তুমি সবার জীবন।
 তোমার আজ্ঞায় সৃষ্টি হইল ভূবন।।
 হেন সৃষ্টি নাশ করে দানব প্রবল।
 তোমা বিনা রক্ষা নাহি মজিল সকল।।
 কাতর হইয়া ব্রম্ভা করিলেন স্তুতি।
 করিলেন অনুজ্ঞ কৃপায় লক্ষ্মীপতি।।
 তোমার বচনে ব্রম্ভা হ'ব অবতার।
 আপনি খণ্ডিব আমি পৃথিবীর ভার।।
 নিজ নিজ অংশ লইয়া যত দেবগণ।
 সবে জন্ম লও গিয়া মনুষ্য-ভুবন।।
 এতেক আকাশবাণী শুনি প্রজাপতি।
 ততক্ষণে আজ্ঞা দিল দেবগণ প্রতি।।
 দেবতা গন্ধর্ব্ব আর যত বিদ্যাধরে।
 সবে জন্ম লও গিয়া আজ্ঞা অনুসারে।।
 ব্রম্ভার আদেশ পেয়ে যত দেবগণ।
 অবনীর মাঝে গিয়া জন্মিল তখন।।
 বলেন বৈশম্পায়নে কহ মুনিবর।
 কোন্ জন দৈত্য আর কোন্ জন নর।।
 মুনি বলে শুন পরীক্ষিতের নন্দন।
 যেরূপা হইল শুন সৃষ্টি-প্রকরণ।।
     --------
  আদি বংশ বিবরণ।
   ব্রম্ভার মানস পুত্র হৈল ছয়জন।
 ছয়জন হৈতে শুন জন্মে ত্রিভূবন।।
 মরীচি ব্রম্ভার পুত্র ত্রিজগতে জানি।
 তাঁর পুত্র হইল কাশ্যপ মহামুনি।।
 তের কন্যা দক্ষের-বিবাহ করে মুনি।।
 তা সবার নাম শুন প্রত্যেক বাখানি।।
 অদিতি, কপিলা, দনু, কদ্রু, মুনি, ক্রোধা।
 দনায়ু সিংহিকা কালা দিতি আর প্রধা।।
 বিশ্বা আর বিনতা যে তের জন গণি।
 তের জনে যত জন্মে শুন নৃপমণি।।
 অদিতির গর্ভে হৈল আদিত্য দ্বাদশ।
 যাঁর কিরণে এই প্রকাশে দিবস।।
 যম, মিত্র, অংশ, ভগ, বরুণ, অর্য্যমা।
 ত্বষ্টা, বিষ্ণু, বিবস্বান্, সবিতা, শত্রুনামা।।
 ইত্যাদি অদিতির পুত্র হৈল বহুতর।
 সকল পুত্রের শ্রেষ্ঠ হৈল পুরন্দর।।
 দিতি দুই পুত্র হিরণ্যাক্ষ, হিরণ্যক।
 দেবের পরম শত্রু, প্রতাপে পাবক।।