পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোণপৰ্ব্ব । ] তাত্রবিক্রমবিষাভ রক্তোষ্ঠিম স্বতোপমাং। Ꮻ% 8☾ লঙ্কা দ্রোণের শির, ধৃষ্টদ্যুম্ন মহাবীর, । বহু শোকাকুল হয়ে কান্দে দুৰ্য্যোধন । নিজ রথে আইল তখন ॥ দেশের নিধন দেখি, দুৰ্য্যোধন হয়ে দুঃখী, বিলাপ করয়ে বহুতর । - হাহাকার শব্দ করি, কান্দে কুরু অধিকারী, পড়িলেন ধরণী উপর ॥* বাদ বিরচিত গাথা, অপূর্ব ভারত কথা, শ্রবণেতে কলুষনাশন । যজ্ঞ ব্ৰত হোম দান, নহে ইহার সমান, মুক্ত হয় শুনে যেই জন ॥ গোবিন্দের গুণকৰ্ম্ম, শ্রবণে বড়িয়ে ধৰ্ম্ম, ইহা বিনা মুখ নাহি আর । , রক্তপদ কোকনদ, ভক্তজন সিদ্ধপদ, অখিলের অাপদ সংহার ॥ নানারূপে অবতরি, দৈত্যগণে ক্ষয় করি, পাতকির পরিত্রাণ হেতু । এ ঘোর সাগরমাঝে, উদ্ধারিতে দেবরাজে, নিজ নামে বান্ধি দিলা সেতু ॥ অভয় চরণে মম, ভক্তি রহে ত্রিবিক্রম, এই মাত্র করি নিবেদন । সংসারসাগর ঘোরে, উদ্ধার করিবে মোরে, কাশীরাম দাস বিরচন ॥ ধৃষ্টদ্যুম্ন বধে অশ্বথামার প্রতিজ্ঞ । মুনি বলে শুন জন্মেজয় নৃপবর। দ্রাণাচাৰ্য্য পড়ি গেল সংগ্রাম ভিতর ॥ ৰ্য্যোধন রাজা কন্দে করি হাহাকার । ঠমধ্যে মহাশবদ ক্রন্দন অপার ॥ ৰ্য্যোধন কান্দি বলে শুন যোদ্ধাগণ । কানজন কোনরূপে করিবে তারণ ॥ মন গুরুকে শত্ৰু সংহারিল রণে । তাড়িবে কে মারিবে পাণ্ডুপুত্ৰগণে ॥ তামহ বীর ছিল ভুবনে দুর্জয় । ধাঁকে পাণ্ডবগণ করিল সংশয় ॥ Rর বিক্রমে ভূগুরাম নহে স্থির। পিতামহে মারে ধনঞ্জয় বীর ॥ معیار হেনুকূলে তথা আসে সূর্য্যের নন্দন । কৰ্ণে দেখি দুৰ্য্যোধন বলে অভিমানে। ভীষ্ম দ্রোণ সেনাপতি পড়ি গেল রণে ॥ এখন কি বল সখে আছে কি উপায় । কর্ণ বলে শুন রাজ বলি হে তোমায় ॥ বড়ই দুর্বল পুরাতন বৃদ্ধ ছিল। বাণ শিক্ষা ছিল তেঁই সমর করিল ॥ দোহা হেতু শোক না করিহ দুৰ্য্যোধন । আমিই বান্ধিয়া দিব পাণ্ডবের গণ ॥ ধৰ্ম্মকে ধরিয়া দিব সমর ভিতর । রণস্থলে শোক না করিছ নৃপবর ॥ হেনকালে তথা আইলেন অশ্বথাম । কৃতবৰ্ম্ম সঙ্গে আর কৃপাচার্য্য মামা ॥ পিতার বিনাশ শুনি হইল অস্থির । শোকে অচেতন হৈল অশ্বথামা বীর ॥ ধৃষ্টদ্যুম্ন হস্তে শুনি পিতার নিধন । মহাকোপে কঁপে বীর দ্রোণের নন্দন ॥ । দুৰ্য্যোধনে চাহি বলে দ্রোণের তনয় । আমি যাহা কহি তাহ শুন মহাশয় ॥ বিনা ধৃষ্টদ্যুম্ন বধে ধনু যদি এড়ি । সৰ্ব্ব ধৰ্ম্ম নষ্ট হবে মরকেতে পড়ি ॥ ধৃষ্টদ্যুম্ন না মারিয়া না আসিব ঘর । করিনু প্রতিজ্ঞ আমি সবার গোচর ॥ গেবিধে ব্রাহ্মণ বধে যত পাপ হয় । সেই পাপ মোরে যদি না মারি নিশ্চয় ॥ এত শুনি আনন্দিত কৌরবকুমার। যুদ্ধ নিবারিয়া গেল স্থানে আপনার ॥ পাণ্ডবের দলে হৈল আনন্দ অপার । সবে বলে কুরু আজি হইল সংহার ॥ বাদ্যের নিনাদ হুৈল না যায় লিখন । মহানাদে নৃত্য করে নটনটীগণ ॥ রত্ব সিংহাসনেতে বৈসেন যুধিষ্ঠির । ভ্রাতৃগণ সহিত সানন্দ যত বীর ॥ বলেন বৈশম্পায়ন জন্মেজয় শুনে । কাশীরাম দাস কহে শুনে সৰ্ব্বজনে ।