পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- ব্যাঘ্ৰচৰ্ম্মাস্থিতে পদ্মে পদ্মাসনগতাং সতীম্‌ ॥ [ মহাভারত। جستاوی T তারকের যুদ্ধে ইন্দ্র হারিয়া আপনি । বাণ না মরিল দেবতাগণের হুতাশ । কাত্তিকের শরণাগত হৈল বজ্রপাণি ॥ অঞ্জলি করিয়া কহে কাৰ্ত্তিকের পাশ ॥ কাৰ্ত্তিকে বিনয়ে কহে দেব সহস্রাক্ষ । বাণ যদি না মরিল নহে ভাল কাৰ্য্য । আপনি নিধন কর দৈত্য তারকাখ্য ॥ কোন দিনে দেবে মারি লবে দেবরাজ্য ॥ *ইন্দ্রবাক্যে কাৰ্ত্তিক করেন অঙ্গীকার । এতেক কহিল যদি সব দেবগণ । সমরে তারকা আমি করিব সংহার ॥ বাণেরে মারিতে চলিলেন ষড়ানন ॥ , এতেক কহিল যদি দেব ষড়ানন। বাণ ছিল ক্ৰৌঞ্চ গিরিগহবরে পশিয় । " তার পরাক্রম সব জানি দেবগণ ॥ শরে শক্তিধর গিরি ফেলেন ভেদিয়া ॥ সবে মেলি অস্ত্র আনি দিল কাক্তিকেরে। ব্ৰহ্মার বচনে সেই স্থান তীর্থ হয় । সহস্ৰলোচন বজ দিল তার করে ॥ স্নানদানে সেখানে অসংখ্য পাপক্ষয় ॥ শঙ্কর দিলেন শূল বিষ্ণু চক্ৰবাণ । মুনি বলে শুনিয়া কাৰ্ত্তিক জন্মকথা । যাহার প্রতাপে দৈত্য নাহি ধরে টান । হলধর হইলেন উপনীত তথা ॥ উৎক্রান্তি শক্তি দান করিল শমন । স্নান যজ্ঞ করিলেন দান বহুতর । বরুণ দিলেন পাশ লোকে অনুপম ॥ ব্রাহ্মণ ভোজন করাইলেন বিস্তর ॥ সৰ্ব্ব বলে যুক্ত হৈয়া যত দেবগণ ২ দধীচির তীর্থে তবে গেলেন লাঙ্গলী । কাত্তিকের সঙ্গে রণে করেন গমন ॥ স্বানদান করিলেন হয়ে কুতূহলী ॥ নানাবাদ্য বাজাইছে যত দেবগণ । শুনিয়া জন্মেজয় বলে তপোধন । শুনিয়া তারকাস্থর কোপাবিষ্ট মন ॥ দধীচি তীর্থের কথা কহ বিবরণ ॥ আপনার সেনাগণে সাজন করিয়া । ভারতের পুণ্যকথা সমান পীযুষ । ; যুদ্ধ করিবার হেতু আইল ধাইয়া ॥ যাহার শ্রবণে হয় নর নিষ্কলুষ ॥ মহা কোলাহল হৈল নাহিক অবধি । -**-* দেবতাগণের হৈল অস্থর বিবাদী ॥ ! দধীচি তীর্থের বিবরণ । যুঝেন কাৰ্ত্তিক এক মনে নাহি ভয় । বলেন বৈশম্পয়ান শুন কুরুরায় । চারিদিকে দৈত্যগণ নিঃশঙ্কছদয় ॥ দধীচি তীর্থের কথা জানাই তোমায় ॥ আগে বাকযুদ্ধ শেষে করে অস্ত্রাঘাত । ত্বষ্ট নামে মুনি এক বিরিঞ্চি-নন্দন । , সংগ্রামে তারকাস্থর যুঝে দৈত্যনাথ ॥ মহাতেজোময় ছিল মহাতপোধন ॥ অস্ত্রে অস্ত্রে নিবারয়ে যার যত শিক্ষণ । | অঙ্কুরের কন্যা এক বিবাহ করিল। গুরুস্থানে যত অস্ত্র পাইলেন দীক্ষণ ॥ ত্রিশিরা নামেতে পুত্র তাহাতে জন্মিল ৷ কাৰ্ত্তিকের বাণে কার’ নাহিক নিস্তার। তিন মুণ্ড হৈল তার দেখিতে সুন্দর ৷ দৈত্যের সকল সৈন্য করিল সংহার ॥ একমুখে বেদপাঠ করে নিরস্তর ॥ মন্ত্রপুত করি শক্তি লইলেন হাতে। আর মুখে রামনাম করে অহৰ্নিশি । কাৰ্ত্তিক মারেন তাহা তারকের মাথে ॥ অন্য মুখে মদ্যপান করে মহাঋষি । শক্তির আঘাতে দৈত্য চুর্ণ হৈল কায় । মুনিপুত্ৰ যজ্ঞ করে যখন যেখানে । ” শেষ সেনাপতি যত সকলে পলায় ॥ লুকাইয়া যজ্ঞভাগ দেয় দৈত্যগণে । # বাণ নামে সেনাপতি তারকার ছিল । মাতামহকুলে তার বড়ই আদর । ভয়ে পলাইয় ক্ৰৌঞ্চ পৰ্ব্বতে রহিল ॥ দেবগণ জানিল সকল সমাচার ।