পাতা:কৃষিতত্ত্ব - নীলকমল লাহিড়ী.pdf/৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

(፩ b” কৃষিতত্ত্ব । পূরণ করিবে এবং উক্ত মতে বীজ বপন করিয়া প্রতিদিবস অল্প অন্ন জল দিবে। অন্ধুরোদগম হইয়া গাছ কিছু বড় হইলে, অর্থাৎ কিঞ্চিৎ নৃত্যুনাধিক এক ফুট উচ্চ হইলে উহার আশ্রয় করিয়া উঠিবার জন্য কাঠী পুতিয়া দিতে হয়। ক্ৰমে গাছ যেমন বাড়িতে থাকিবে তেমনি ঐ কাঠীর সহিত গাছ লাগাইয়া সারি সারি বাত বান্ধিয়া দিবে। শেষে দুই পাশ্বের কাঠীর মাথা একত্ৰ করিয়া বাত বান্ধিয়া দিবে। মৃত্তিকাতে রস না থাকিলে সময় সময় ऊटा gिट् । অল্প অল্প পরিমাণে অগ্র পশ্চাৎ ক্ৰমে মাসে মাসে এক এক খান ক্ষেত্র করা উচিত। তাহা করিলে অনেক দিন ফল ভোগ করা যায় । ইহার কাচা ফলের বীজ সকল ভক্ষণ করিতে উত্তম । কলাইশুটী প্ৰসিদ্ধ ভক্ষণীয় বস্তু । ঢাকা প্রভৃতি অঞ্চলে পলিযুক্ত চরে দেশীয় মটরের ন্যায় বপন করে। তাহাতে ও উত্তম হয়, অন্যত্র কোন কোন স্থানে সসারও দোয়াস মৃত্তিকা উত্তমরূপে চাষ করিয়া বপন করে, তাহাতেও ভাল হয় । habibilgih মসুর, মসূয়ী । কাৰ্ত্তিক মাসে জল শুষ্ক হইলে নিম্ন ভূমিতে এবং সরস উচ্চ ভূমিতে ইহা বপন করা যায়। নীরস ভূমিতে হয় না। স্মৃত্তিক শুষ্ক হইলে গাছ মরিয়া যায়, অধিক রস থাকিলে গাছ বাড়ে না। অধিক রস না থাকে। অথচ শুষ্ক না হয় এই প্রকার মৃত্তিকা মনোনীত করা আবশ্যক। ইহার নিমিত্ত ছাই সাৱ ଓଫ୍ରା- ୪ । বরিশাল, রাজসাহী, পাবনা, কুচবিহার, রঙ্গপুর, প্ৰভৃতি জেলাতে অধিক আবাদ হয় । কাৰ্ত্তিক মাস বপনের সময়। এক বিঘা। ভূমিতে পােচ সেরের অধিক বীজ বপন করিতে হয় না । ক্ষেত্ৰ এক কি দুইবার চাষ করিয়া শেষ চাষের সময় বীজ বপন করিয়া DD BBD S SDBDDBD DBBB BDD D BDS