পাতা:খুনী কে - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

১২

দারোগার দপ্তর, ১৬৫ সংখ্যা।


 আ। ইহার কারণ কি?

 ভ। সে কথা বলিতে পারিলাম না। দামোদর বাবুকে জমীদার মহাশয় যথেষ্ট অনুগ্রহ করিতেন।

 অ। অনুগ্রহ করিতেন বলিয়া নিজের কন্যা দান করিবেন, এ বড় আশ্চর্য্য কথা!

 ভবানীপ্রসাদ উত্তর করিলেন, “জানি না,—কেন তিনি জমীদার মহাশয়কে যাহা বলিতেন, জমীদার মহাশয় তাহা করিতে বাধ্য হইতেন।”

 আ। কেশব বাবু বাড়ীতেই আছেন ত?

 ভ। আজ্ঞা হাঁ। তিনি নড়িতে পারেন না। তাঁহার শরীর পূর্ব্ব হইতেই ভাঙ্গিয়া ছিল, সম্প্রতি বোধ হয় প্রিয় বন্ধুর মৃত্যুতে একেবারে শয্যাগত হইয়াছেন। ডাক্তারেরা কাহাকেও নিকটে যাইতে দিতেছেন না।

 আমি আশ্চর্য্যান্বিত হইয়া বলিলাম, “বটে! বন্ধুর মৃত্যু সংবাদে তাঁহার এমন অবস্থা হইয়াছে? ভাল, যতীন্দ্রনাথের সহিত দেখা করিতে বোধ হয় বাধা নাই।”

 লালমোহন আমার কথায় হাসিয়া উত্তর করিলেন, “না—যখনই বলিবেন, তখনই আমি আপনাকে সেখানে লইয়া যাইব।”

 ভবানীপ্রসাদ তখন তাঁহার বন্ধুর মুক্তির জন্য আমায় বারম্বার অনুরোধ করিয়া থানা হইতে বাহির হইলেন।