পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাল্যবন্ধু VES ষষ্ঠ পরিচ্ছেদ নলিনী গুহে পদার্পণ করিবামাত্র স্মি বলিয়া উঠিল—“তোমার কি হাঙ্কেল বল দেখি বাৰু ? তুমি আজ তিন দিন বাড়ীছাড়া, বৌমা কেঁদে কেটে জর করে বসেছে, আমরা ভাবনায় ছটু ফন্টু করে বেড়াচ্ছি, দিন কাটে ত রাত কাটে না, রাত কাটে ত দিন কাটে না, পুলিশ আদালত থকে বেরিয়ে তুমি কোথায় আবার চলে গেলে বল দিকিন ?” “জ্বর হয়েছে না কি ?”—বলিতে বলিতে নলিনী দ্রুতবেগে সিডি উঠিতে লাগিল। ঝি তাহার পশ্চাৎ পশ্চাৎ চলিল । শয়নকক্ষে প্রবেশ করিয়া নলিনী দেখিল, তাহার স্ত্রী খোকাকে ললে করিয়া দাড়াইরা আছে, খুকী বসিয়া একটা বাটিতে করিয়া মুড়কি গাইতেছে । নলিনী বলিল—“তোমার জ্বর হয়েছে ?” হেমাঙ্গিনী নীরবে খোকাকে স্বামীর কোলে দিয়া, মাথাটি ষ্টেট করিয়া চক্ষে অঞ্চল দিল । খুকী মুড়কি ছাড়িয়া দাড়াইয়া উঠিয়া, মার অঞ্চল চাপিয়া ধরিয়া, &লছল নেত্রে পিতার পানে চাহিয়া রহিল । নলিনী স্ত্রীর চক্ষু হইতে অঞ্চল অপস্বল্প করিয়া বলিল—“কেঁদ নী কেদ না, চুপ কর। জর কি এখনও রয়েছে চিমু ?”—সঙ্গে সঙ্গে কপালে হাত দিয়া উত্তাপ পরীক্ষা করিয়া দেখিল । হেমাঙ্গিনী ঘাড় নাড়িয়া মৃদুস্বরে বলিল—“জর নেই।” নলিনী গিয়া বিছানায় উপবেশন করিল । ঝির তখন আবীর মুখ খুলিল। সে বলিতে লাগিল—“জর হবে না ? এসে যে দেখতে পেয়েছ, এই ঢের। পরশু তুমি সকাল বেলা বেরিয়ে গেলে, সমস্ত দিন এলে না,