পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উপন্যাস কলেজ పి&సి इथैज्ञाzछ । छखि* श्बाब्र कौ so छेका ७ष९ धानिक रवठन ७५ छेका भाद्य । यथनe छेङग्न बिडारण करग्नरूछे कब्रिग्ना नौ थालि आ८छ्-याँशरनब्र धाम्नाछन, नक्षत्र याrयमन করন। অন্যান্য বিষয় জানিতে হইলে, এক আনার স্ট্যাম্প সহ আবেদন করন। ঠিকানা -२२6 न९ cन"प्लेोल आर्खािनेॐ, कलिकाठा ।” বিজ্ঞাপনটির উপরিভাগে একটি সবাহৎ পাঁচতলা বাড়ীর ছবি আছে। বিজ্ঞাপনটি বার দই পড়িয়া, অবিনাশ কাগজখানি রাখিয়া চিন্তায় নিমগ্ন হুইল । লীর অসাধারণ কবিত্বশক্তি দশনে, তাহার মনে বড় আশা হইয়াছিল যে, সাহিত্যক্ষেত্রে শ্ৰীমতী সষেমা দেবীর পদাপণ মাত্র দেশময় একটা হৈ চৈ পড়িয়া যাইবে—তাহার বৈঠকখানার পন্তেক-প্রকাশক ও মাসিক সম্পাদকগণের ভিড় লাগিয়া যাইবে, দেশশখে লোক সমস্বরে বলিবে, হাঁ, এতদিন পরে বাঙ্গালা ভাষায় খাঁটি কাব্যরসের আমবাদ পাওয়া গেল বটে। কিন্তু অবিনাশের সে মনের আশা মনেই লয় পাইয়া গিয়ছে। বিবাহের পর কয়েক মাস মধ্যে, সীর অনেকগুলি কবিতা একত্র করিয়া, অবিনাশ “পাপহার” নামক একখানি বহি ছাপাইয়া বাজারে বাহির করিয়াছিল। কিন্তু পাপহারের আদর হষ নাই—আগাগোড়া সব কথা ভাবিলে এই সিদ্ধান্তই অনিবায্য হয় যে, সমালোচকগণ ও পাঠক সাধারণ জোট বাধিয়া ধৰ্ম্মঘট করিয়া, তার বউয়ের বইখানি বয়কট করিয়াছে। তা ছাড়া বই বাহির হইবার পর বছরখানেক ধরিয়া, সষেমার অন্ততঃ একশোটি নতন কবিত। অবিনাশ ভিন্ন ভিন্ন মাসিকে পাঠায়—তার মধ্যে ৯৫টি ফেরৎ আসিয়াছিল, পাঁচটি মাত্র ছাপা হইয়াছিল, তাও মফঃস্বলের পত্রিকায়। এই কারণে, অবনাশ বড়ই ভগ্নোদ্যম হইয়া পড়িয়াছে। সে স্থির বঝিয়াছে, কাব্যের যগে এখন আর নাই;–এ যুগে স্বয়ং কালিদাস একখানি নতন মহাকাব্যের পাণ্ডুলিপি হাতে করিয়া কলিকাতায় আসিলে, কোন প্রকাশকই নিজব্যয়ে তাহা ছাপাইয়া প্রকাশ করিতে সক্ষমত হইবেন না—অথচ তাঁহারাই রামা শ্যামা নিধের অতি ওঁচা উপন্যাসও গোগ্রাসে গিলিতেছেন । বিজ্ঞাপনে যাহা লিখিত হুইয়াছে—বঙ্গে গলপ উপন্যাসেরই যগই আসিয়াছে বটে। সষেমার মত প্রতিভাশালিনী লেখিকা যদি উপন্যাস রচনায় মন দেয়, তবে তাহার প্রতিষ্ঠা ও সাফল্য অবশ্যম্ভাবী। কিন্তু উহারা বিজ্ঞাপনে ঐ যে কথা লিখিযাছে, গরোপদেশ ভিন্ন কেহ কোনও কায্যে দক্ষতা লাভ করিতে পারে না তাহাও ঠিক। ঐ কলেজেই বউকে ভত্তি করিযা দেওয়া অবিনাশের ইচ্ছা—এখন বউ রাজি হইলে হয। চার বউ রাজি হইল, কিন্তু অনেক তকবিতক মান অভিমানের পর। সষমা বলিয়াছিল, “আমি না হয় একটা ইংরেজিই শিখেছি, কিন্তু তা বলে মেম ত আর হইনি। জতো মোজা পরে ট্রামে চড়ে এ বয়সে,আমি কলেজে যেতে পারি কখনও ?” “কেন, জুতো মোজা পরে ট্রামে চড়ে তুমি বায়কোপ দেখতে যেতে না বউ ? আজকালই না হয় খকেী হয়ে অবধি—” 鱷 “সে ত তোমার সঙ্গো বেতাম।” “তা বেশ ত একলা যেতে যদি তোমার ভয় হয়, আমি সঙ্গে করে তোমায় রেখে আসবো গো !” “দজনকার ট্রাম ভাড়া লাগবে ত? তার পর, কলেজের ছ' টাকা মাইনে আছে, কাপড়-চোপড়ের খরচ, ধোলার খবচও বাড়বে—-চালাবে কেমন করে ?” “মাইনের টাকায় না কুলোয়, আমি না হয় একটা প্রাইভেট টিউশন-মিউশন ফুেগাড়