পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৩৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাটা মডে @@@ খাজা অর্থাৎ সওদাগরের বেশ, কোনও দিন আমির ওমরাহের বেশ-কল কথা তাঁহার ছদ্মবেশ এতই গোপনীয় ছিল যে, কেহই তাঁহাকে চিনিতে পারিত না। কেবল তাঁছার দই চারজন বিশ্বশুড় মন্ত্রী ও অনচর সে বিষয় অবগত ছিল। ইতিমধ্যে রাজ্যে প্রবল অসন্তোষ উপস্থিত হইল, এমন কি বিদ্রোহ হয় হয়। তখন বাদশাহ মনে করিলেন, এখন আমার এরপে সতকতা অবলম্বন করা আবশ্যক যে, আমার নিজ বিশ্বন্ত মন্ত্রীগণও কিছুই জানিতে না পারে। তাহাদের নিজের মনের অবস্থা কিরাপ, তাহারও অনুসন্ধান আবশ্যক। ছদ্মবেশের পোষাক প্রস্তুত করিবার জন্য তিনি ভিন্ন ভিন্ন দরজিকে নিযুক্ত করিতেন। এবার কোনও মন্ত্রীকে কিছল না বলিয়া মনসাঁর নামক তাঁহার অতি বিশ্বমত গোলামকে ডাকিয়া আজ্ঞা দিলেন, “সহরে গিয়া কোনও একজন দরজিকে লইয়া আইস। গভীর রাত্রি হইলে তাহাকে আনিবে। এরপে সাবধানে আনিবে যে, সে দরজিও যেন না জানিতে পাবে যে, সে কোথায় আসিতেছে।” গোলাম নত হইয়া বলিল—“বেশ আস্তান। প্রভুর আদেশ এইক্ষণেই পালন করিব।” এই বলিয়া মনসরি বিদায় লইল। সন্ধ্যা হইলে বেজেস্তান অর্থাৎ সহরের যে বাজারে বসত্ৰাদি বিক্রয় হয়, তথায় যাইয়া একজন সামান্য দরজির অনুসন্ধান করিতে লাগিল। একটি ক্ষুদ্র দগন্ধময় গলিব মধ্যে প্রবেশ করিয়া, একটি সামান্য দোকানে গিয়া দেখিল, এক বন্ধ দরজি বসিয়া একটা পরাতন কোট মেরামত করিতেছে। দরজির দোকানে মত্তিকার প্রদীপে আলো জলিতেছে, তাহার চক্ষতে চশমা লাগানো। দেখিয়া মনসরি ভাবিল—“এই ঠিক লোক পাইয়াছি।” দোকানে উঠিয়া মনসাবি বলিল—“খলিফা সাহেব! সেলাম আলেকুম।” ಕಣ ಾಗ 'ಗೇ' ಈಗ 7 বলিল, “আলেকুম সেলাম, কি চান আপান ?” মনসার কাঁহল—“আপনার নাম কি ?” “আমার নাম আবদুল্লা, কিন্তু লোকে আমাকে বাবাদল বলিয়া ডাকে।" “आ*नि कि प्रब्रछि ?” “হাঁ, আমি দরজির কায্যও করি এবং মাছয়াবাজারে যে ক্ষুদ্র মসজিদ আছে, সেখানে ময়েডিজনের কায্যও করিয়া থাকি। আপনার কি হলরুম ?” “বাবাদল সাহেব, একটা পোষাক প্রস্তুত করিতে পারবে ?" “কেন পারিব না ? অবশ্য পারিব।” “অনেক পয়সা পাইবে।” “উত্তম কথা।” মনসরি তখন পলিল—“কিন্তু একটা কাজ তোমাকে করিতে হইবে। যেখানে তোমাকে পোষাকের মাপ লইতে হইবে, সে অতি গোপনীয় স্থান। আমি রাত্রিতে তোমার চোখে রমাল বধিয়া সেখানে লইয়া যাইব । রাজি আছ ?” দরজি তখন বলিল—“তাই ত এ যে বড় বিষম কথা। আজকাল ষেরপ দিন পড়িযছে, তাহাতে ভয় হয়। আচ্ছা, তবে যদি আমাকে ভালরাপে বখশিস দাও আমি সম্মত আছি। বেশী পয়সা পাইলে আমি স্বয়ং ইরিশ অর্থাৎ সয়তানের জন্যও পোষাক প্রস্তুত করিয়া দিতে পারি।” মনসরি বলিল—“তবে এই লও” বলিয়া দরজির হতে দুইটি স্বর্ণমাদ্রা প্রদান कर्गज़ल । একবারে দইটি স্বর্ণমাদ্রা গরীব দরজি জীবনেও কোন দিন পায় নাই, মাদ্রা পাইয়া অত্যন্ত খসী হইয়া বলিল-“কখন বাইতে হইবে ?”