পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ब्रानौ चाच्षणिका 8షి DDD DDDD DDD DDD DDD BB BBB DD BB BB DDD DDD HDDBD D DDDDS DBBB DDBS DBD DDDBB BBB BB BD D च्यङौन्न कथा कार्याङ्द्र झम्र ना । rन ब्राद्यG अम्बालिका कॉमिग्ना काछेईलन । পরদিন বিপ্রহরে, তাঁহার স্বারে একখানি পাদর্ণঘেরা তাঞ্জাম আসিয়া লাগিল। মিনা ছটিয়া আসিয়া সংবাদ দিল, রাণী হৈমবতী দশনপ্রাখিনী। “তাঁহাকে লইয়া আইস।”—বলিয়া অবালিকা সবিস্ময়ে ভাবিতে লাগিলেন, এ দশনের উদ্দেশ্য কি ? সমবেদনা-জ্ঞাপন ?—না, রঙ্গ দেখিতে আসা ? হৈমবতী ত সে প্রকৃতির মেয়ে নহে। তাহার মুখে সদাই হাসি—মনে কিছমাত্র কপটতা নাই— ইহা ত সকলেই বলে; অ-বালিকাও বৎসরাধিক কাল তাহাকে দেখিতেছেন, তাঁহারও বিশ্ববাস সেইরপে। হৈমবতী প্রবেশ করিয়া, অম্বালিকাকে প্রণাম করিলেন। তাঁহার বয়স সপ্তদশ বষ* মার—দেহ-নদী প্লাবিয়া নবযৌবনের জোয়ার ছটিতেছে। হৈমবতী কহিলেন, "দিদি, আমি মহারাজের নিকট সকল কথাই শনিয়াছি। তুমি মহারাজকে যে কথা বলিয়াছিলে, তাহা বলাটা বড়ই দোষের হইয়াছে বইকি। অত্যন্ত রাগের বশে ওকথা তোমার মুখ হইতে বাহির হইয়াছিল, তাহাও আমি বুঝিতে পারিতেছি। কিন্তু না বলিলেই ভাল হইত, একথা তুমিও বোধ হয় এখন বুঝিতেছ।” অম্বালিকা বলিলেন, “এখন কেন, যে দণ্ডে আমার এ পোড়া মুখ হইতে ও কথা বাহির হইয়াছিল, সেই দণ্ডেই বুঝিয়াছিলাম। কিন্তু তখন আর উপায় কি ?” হৈমবতী অনেক দুঃখ প্রকাশ করিতে লাগিলেন। তিনি যে এ সকল কথা সরল অন্তঃকরণেই বলিতেছেন, সে সম্বন্ধে অম্বালিকার কিছমাত্র সন্দেহ রহিল না। চিঠি ও মহারাজের মৌখিক উত্তরের কথাও নতন রাণী অবগত ছিলেন। তিনি বলিলেন, “আর একখানা চিঠি লিখিয়া দেখিলে হয় না ?” “स्राव हि छिथिव, झिन ?” “তুমি মহারাজকে কি লিখিয়াছিলে তাহা আমি জানি না। এস প্লা, দুইজনে পরামর্শ করিয়া একখানা চিঠি লেখা যাক ৷” ---- অম্বালিকা বলিলেন, “যা ভাল বোঝ তাই কর ভাই।” আশবালিকা কাগজ কলম লইলেন। পরামশের বড় একটা প্রয়োজন হইল না, হৈমবতী বলিয়া যাইতে লাগিলেন; অপবালিকা লিখিতে লাগিলেন। বিদষী বলিয়া হৈমবতীর খ্যাতি ছিল। পর সমাপ্ত হইলে, হৈমবতী বলিলেন, “আজই এখানি মহারাঞ্জের নিকট পঠাইয়া দাও। আজ রাত্রে, আমার কুঞ্জেই তাঁর স্থিতি। আমিও কথাটা গাড়ব -८ार्गश्च त् िप्ठाँन भन्न खिच्छ्राद्दैट्उ श्राद्वि ॥” 힘, g . . “যা হয করিস ভাই।”—বলিয়া অম্ববালিকা, সপত্নীকে বিদায়-চবেন করিলেন। হৈমবতী বললেন, “কাল আবার এই সময় আমি আসিব; মহারাজ কি উত্তর দেন, তাহাও দেখিয়া যাইব ।”—বলিয়া তিনি প্রস্থান করিলেন । u চতুর্থ পরিচ্ছেদ ॥ পরদিন বিপ্রহরে, রাণী হৈমবতী আবার আসিয়া দশন দিলেন। আজ তাঁহার মুখখানি বেশ হাসি হাসি। তাঁহার মাথ দেখিয়া অম্বালিকায় মনে ভরসা হইল, বোধ হয় কোনও সুসংবাদ আছে। জিজ্ঞাসা করিলেন, “খবর কি ভাই ?” হৈমবতী তাঁহার বল্লমধ্য হইতে, পত্র বাহির করিয়া বলিলেন, “আজ আমিই, তোমার Ծ/8