পাতা:গৌতমীয়-তন্ত্রম্‌.djvu/৩৭

From উইকিসংকলন
Jump to navigation Jump to search
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


లిపి গৌতমীয়ুতন্ত্ৰম্ প্রাণে বায়ুরিতি খ্যাত আয়ামস্তন্নিরোধনম্। প্রাণায়াম ইতি প্রোক্তে যোগিনাং যোগসাধন ॥ ১৬২। আগুস্তয়োৰ্ব্বিধীয়ন্তে নাসিকাপুটচারিণঃ । রেচয়েদক্ষয়া নাসা পূরয়েৰামতস্ততঃ ॥ ১৬৩ ৷ হাত্রিংশদভ্যসেন্মন্ত্রং প্রাণায়াম: স উচ্যতে। ব্ৰহ্মহত্যা মুরাপানমগম্যাগমনং তথা ॥ ১৬৪ । সৰ্ব্বমাগু দহত্যেব প্রাণায়ামেন বৈ দ্বিজ । দ্রুণহত্যাদিপাপানি নাশয়েন্মাসমাজতঃ ॥ ১৬৫ ৷ প্রাতঃ সায়ং চরেল্লিত্যং ষোড়শ প্রাণসংযমান । নাশয়েত সৰ্ব্বপাপানি ভূলরাশিমিবানল ॥ ১৬৮ ৷৷ সৰ্ব্বেষামেব পাপানীং প্রায়শ্চিত্তমিদং স্মৃতম্। স্বদেহস্থং যথা সপশ্চৰ্ম্মোৎস্যজ্য নিরাময় ॥ ১৬৭ ॥ ব্যক্তিগণ প্রাণবায়ুর গমনাগমন ও তাহার অবরোধকেই প্রাণায়াম বলিয়াছেন। ১৬১ ৷ প্ৰাণ শব্দের অর্থ বায়ু এবং আয়াম শব্দের অর্থ তাহার গতিরোধ। এই প্রাণায়ামই যোগীদিগের যোগসাধন বলিয়া কথিত হইয়াছে। প্রাণীয়ামের আদি ও অস্তে বায়ু দ্বারা নাসাপুটচারী হয়। দক্ষিণনাসিক দ্বারা ত্যাগ ও বামনাসিকাদ্বারা গ্রহণ করিতে হয় । এইরূপ দ্বাত্রিংশদুবার মন্ত্রজপ করিলেই একটি প্রাণায়াম করা হয় । ব্রহ্মবধ, মুরাপান, অগম্যাগমন প্রভৃতি মহাপাতকসকলও ঐ প্রাণায়াম দ্বারাই শীঘ্র ধ্বংস হইয়া থাকে ও ক্রণহত্যাদি পাতকও নামমাত্রে বিনষ্ট হয়। প্রতিদিন প্রাতে ও সন্ধ্যায় ষোড়শৰার প্রাণায়ামকারী ব্যক্তির অনলে তুলরাশির দ্যায় সমস্ত পাপই বিনষ্ট হইয়া থাকে। ১৬২-১৬৬ ৷ প্রাণায়াম সকল পাপেরই