পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক তখন উষার আধ আলো পড়েছিল মুখে দু-জনার, তখন কে জানে কারে, কে জনিত আপনারে কে জানিত সংসারের বিচিত্র ব্যাপার । অণথি মেলি যারে ভালো লাগে তাহারেই ভালো ব’লে জানি । সব প্রেম প্রেম নয় ছিল না তো সে সংশয়, যে আমারে কাছে টানে তারে কাছে টানি । অনস্ত বাসর-সুখ যেন নিত্য হাসি প্রকৃতি বধুর, পুষ্প যেন চিরপ্রাণ পাখির অশাস্ত গান, বিশ্ব করেছিল ভান অনস্ত মধুর । সেই গানে, সেই ফুল্ল ফুলে, সেই প্রাতে, প্রথম যৌবনে, ভেবেছিছ এ হৃদয় অনস্ত অমৃতময় প্রেম চিরদিন রয় এ চির-জীবনে । তাই সেই আশার উল্লাসে মুখ তুলে চেয়েছিছু মুখে ; স্থধাপাত্র লয়ে হাতে কিরণ-কিরীট মাথে তরুণ দেবতা-সম দাড়ায় সম্মুখে । পত্র-পুষ্প-গ্রহ-তারা-ভরা নীলাম্বরে মগ্ন চরাচর,