পাতা:জগজ্জ্যোতি বা নুরজাহান.pdf/১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

[ a J আকৃবর। কি! সেলিম, প্রিয়পুত্র জাহাঙ্গীর, যাহাকে আমি এই বিস্তীর্ণ ভারতের সম্রাট করিয়া পরলোকে গমন করিব বলিয়া স্থির করিয়াছি, সেই কিনা একটি সামান্ত বণিকের কস্তাকে বিবাহ করিতে উদ্যত হইয়াছে । ইহাতে আমার বেস বোধ হয় যে, সেলিম, রাজনীতি কিছুই শিক্ষা করে নাই। রাজী। সেলিম ছেলেমানুষ, শক্রর মুখে ছাই দিয়ে সবে পচিশ বৎসরে পা দিয়েচে বইত নয়, এখন রাজনীতি টাজনীতি আর কি শিক্ষা করিবে । আকবর। প্রিয়সি, তুমি কি শোননি যে, আমি দ্বাদশ বৎসরের সময় এই ভারতের অধীশ্বর হয়ে, কত বুদ্ধি কৌশলে শক্র হস্ত হইতে রাজ্য রক্ষা করিয়াছি ; সেই বাল্যাবস্থায় স্বয়ং পানিপট ক্ষেত্রে উপস্থিত থাকিয়া হিমুকে পরাভূত করিয়াছি ; ষোড়শ বৎসরের সময়, প্রায় বিছরের ভূল্য বুদ্ধিমান মান্যবর বয়রাম খাঁর হস্ত হইতে কেমন বুদ্ধি কৌশলে রাজকাৰ্য্য সকল স্বহস্তে আনিয়াছি ? সেই অল্প বয়সে, রাজপুতনায় আর যে কত দুঃসাধ্য কাৰ্য্য করিয়াছি, তাহা শুনিলে তোমার কোমল হৃদয় এখনি ব্যথিত হইবে । সে যাহা হউক, তুমি নূরজাহানকে একটু সতর্ক করে দিও, যেন সে সেলিমের নিকট কখন না যায়। শীঘ্রই আমি সুপাত্ৰ দেখিয়া নুরজাহানের বিবাহ দিব । রাল্পী। আমি আঁদ্যই এক সময়ে নূরজাহানের সহিত দেখা করিয়া, তাকে বিশেষরূপে সতর্ক করিয়া দিব । আকৃবর। মহিী, তবে এখন আমি আসি। (আকৃবারের প্রস্থান )