পাতা:জগজ্জ্যোতি বা নুরজাহান.pdf/২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

চতুর্থ অঙ্ক প্রথম দৃশ্য । দিল্লীর রাজবাটীর প্রাস্তরস্থিত *প্রমোদকানন’ । উদ্যানে জাহাঙ্গীরের প্রবেশ । জাহা । হায় । “প্রমোদকানন” আজ কি মনোহর শোভাই ধারণ করিয়াছে। প্রতিদিন রাত্রিকালে আমি এই উদ্যানে ভ্রমণ করিতে আসি, কই, এরূপ শোভা ত একদিনও দেখি নাই, বুঝি বনদেবী আজ আমার আনন্দে আনন্দিত হইয়াই এই অপূৰ্ব্ব শোভা ধারণ করিয়াছেন । আহা ! চন্দ্রমারই বা কি মনোহর জ্যোতি, চন্দ্রমা, এ হতভাগোর আনন্দে তোমার কি আজ আনন্দ হইয়াছে। না বহুদিবস পরে তোমার কোন মনের মানুষকে পাইয়া, আলু থালু ধুলি মাখা বসন ভূষণগুলি, পরিত্যাগ করিয়া এই মনোহর মূৰ্ত্তি ধারণ করিয়াছ ? অাজ ঐ বট বৃক্ষটিরই বা কি শোভা ! বোধ হয়, যেন বনদেবী স্বয়ং ঐ বৃক্ষে বিরাজ করিতেছেন। অ্যাঃ, এই গভীর রাত্রে (বট বৃক্ষের পাশ্বাস্থত ) ঐ বাজায়নে স্বমধুরম্বরে ও কে গান করিতেছে ? (কিঞ্চিৎ অগ্রসর হইয়া) আপনি কি কোন স্বৰ্গীয় বিদ্যাধরী না কোন জ্যোতিৰ্ম্ময় বিস্থাৎ ?