পাতা:জয়তু নেতাজী.djvu/৩০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৬e জয়তু নেতাজী যদি তোমরা আমার কথা অনুসারে কাজ কর তাহা হইলে সন্ত্রাসবাদীরা দেশ দখল করিয়া বসিবে, এবং আমি যাহা কিছু চাই তাহার সব কিছুই তাছাদের নিজ কাৰ্য্যপ্রণালী অনুসারে ঘটাইয় ছাড়িবে । গান্ধীর নিজ মুখের কথা এইরূপ— ‘তোমরা কি চোখ খুলিয়া দেখিবে ন—সম্রাসবাদীরা তাহাদের রক্ত দিয়া কি লিখিতেছে ?•••স্বাধীনতা না পাইলে আমাদের মধ্যে এমন হাজার হাজার লোক আছে যাহারা লিজদিগকে শান্তি দিবে না, দেশকেও শাস্তি দিবে না বলিয়া প্রতিজ্ঞা করিয়াছে।’ অহিংসার অবতার গান্ধী ঐ চরমপত্র অতি নিপুণভাবেই খাড়া করিয়াছিলেন । উহা দ্বারা হিংসা বা সম্রাসেব স্বপক্ষে যেরূপ বিশ্বব্যাপী ও কার্যকরী বেতার-প্রচার সাধিত হইল, এমন আর কোনো কিছুতেই ছইত না ।” অধ্যাপক সরকারের ঐ কথাগুলিব অর্থ এই যে, মহাত্মা গান্ধী ব্রিটিশকে ঐ হিংসার ভয় দেখাইয়াই তাহাকে তাহার বাধ্য করিবার চেষ্টা করিতেন। কিন্তু ইংরাজ তো শিশু নয় যে, ঐন্ধপ জুজু দেখিয়া ভয় পাইবে । সে যে অহিংসাকে কিছু মাত্র গ্রাহ করে না তাহ আমরাও যেমন দেখিয়াছি, গান্ধীজিও তাহ বার বাব দেখিয়াছিলেন । তাহার একমাত্র আশা ছিল, যদি ঐ জুজু সত্যই বাঘ হইয়া উঠে, তাল হইলেই তাহার কার্য্যসিদ্ধি হইবে—কারণ অহিংসাকে ইংরাজ বিশ্বাস করে না, হিংলাকে করে । অতএব গান্ধী-পস্থা অর্থে অহিংসার পস্থা নয়-উহ্য হিংলাপন্থীদের দিয়াই কাৰ্য্যোদ্ধার করিয়া অহিংসার জয় ঘোষণা করা । হইয়াছিলও তাছাই । ব্রিটিশ যদি বা দ্বিতীয় মহাযুদ্ধে কোন রকমে শেষ পর্যন্ত খাড়া থাকিবার আশা করিতেছিল--তথাপি,