পাতা:জ্ঞাতি শত্রু - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৪০

দারােগার দপ্তর, ২০২ সংখ্যা।


 আ। শক্তিসাধন আপনার নামে অভিযোগ করেন নাই, তাঁহার সে সাহস নাই। কেবল সন্দেহ করিয়াছেন।

 র। আপনি তবে এখন কি করিতে চান?

 আ। আপনার সাহায্য চাই!

 র। কোন্ কার্য্যে?

 আ। অকৃত অপরাধীকে গ্রেপ্তার করিতে। আপনারই মুখে শুনিলাম, হরিসাধনবাবুর সহিত আপনার বড়ই সদ্ভাব ছিল। যদি তাই হয়, তাহা হইলে আপনারও নিশ্চিন্ত থাকা উচিত নহে।

 রসময় মুখে কোন উত্তর করিলেন না। কিন্তু তাঁহার চক্ষুদ্বয় দিয়া দরদরিত ধারে অশ্রুজল বিগলিত হইতে লাগিল। তিনি যে সম্পূর্ণ নির্দ্দোষী, সে বিষয়ে আর কোন সন্দেহ রহিল না।

 কিছুক্ষণ পরে শান্ত হইয়া রসময় অতি বিনীত ভাবে বলিলেন, “আমি প্রাণপণে আপনার সাহায্য করিতে সম্মত আছি। যতক্ষণ না হরিসাধনের হত্যাকারীকে রাজদণ্ডে দণ্ডিত হইতে দেখিতেছি, ততক্ষণ আমিও নিশ্চিন্ত হইতে পারি না। আপনি শক্তিসাধনের উপয় একটু নজর রাখিবেন, তাহা হইলে শীঘ্রই সফল হইতে পারিবেন। তদ্ভিন্ন আপনার যখন যেরূপ সাহায্যের আবশ্যক হইবে, দয়া করিয়া আমায় সংবাদ দিলে আমি আপনার নিকট গমন করিব।”

 কথায় কথায় বেলা দশটা বাজিয়া গেল। আমি রসময়বাবুকে ধন্যবাদ দিয়া তাঁহার নিকট বিদায় লইলাম এবং থানায় প্রত্যাগমন করিলাম।