পাতা:জ্ঞাতি শত্রু - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৪৮

দারােগার দপ্তর, ২০২ সংখ্যা।


 আমার শেষোক্ত কথাগুলি বলা ভাল হয় নাই। কেন না, ঐ কথা শুনিয়া ডাক্তার বাবু আমাকে একবার ভাল করিয়া দেখিলেন। পরে কি ভাবিয়া বলিলেন, “তোমাকে যেন আর কোথাও দেখিয়াছি বলিয়া বোধ হইতেছে। তোমার নাম কি বল দেখি? আর এই জোড়াবাগানে আসিয়া উপস্থিত হইলাম। তোমার বাসা কোথায় কোচমানকে বলিয়া দাও?”

 আমি দেখিলাম, সত্যই আমরা জোড়াবাগানে আসিয়া পঁহুছিয়াছি। বাস্তবিক সেখানে আমার কোন বাসা বাড়ী নাই। আমি ডাক্তার বাবুর মুখের কথা শুনিবার জন্যই এই উপায় অবলম্বন করিয়াছিলাম। এখন ডাক্তার বাবুর কথা শুনিয়া আত্মগোপন করিবার আবশ্যকতা বুঝিলাম না। ঈষৎ হাসিয়া বলিলাম, “আপনাকে বৃথা কষ্ট দিলাম বলিয়া ক্ষমা করিবেন। কোন রোগী দেখাইবার জন্য আমি আপনাকে এখানে আনি নাই। যে কারণে এই কষ্ট স্বীকার করিলাম, তাহাতে সফল হইয়াছি।”

 আমার কথায় ডাক্তার বাবু আর একবার আমার আপাদ মস্তক নিরীক্ষণ করিলেন। পরে হাসিতে হাসিতে বলিলেন, “আপনাদের বাহাদুরী আছে। যেরূপ ছদ্মবেশ করিয়াছেন, তাহাতে কেহ যে আপনাকে চিনিতে পারিবে এমন বোধ হয় না। যাহা হউক, আপনাদের অসাধ্য কার্য্য নাই। আমাকে কি করিতে বলেন?”

 আ। আপনাকে প্রধান সাক্ষী হইতে হইবে।

 ডা। কেন?

 আ। আপনিই শক্তিবাবুকে আর্শেনিক দিয়াছিলেন।