পাতা:জ্ঞাতি শত্রু - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

জ্ঞাতি-শত্রু।

৫৩


 শক্তিসাধনকে থানায় চালান দিবার চেষ্টা করিতেছি, এমন সময়ে এক প্রৌঢ় হরিসাধন বাবুর বাড়ীতে আগমন করিলেন। তিনি বাহিরে অনেক লোকসমাগম এবং শক্তিসাধনকে তদবস্থায় দেখিয়া কিছুমাত্র আশ্চর্য্যান্বিত হইলেন না; বরং ঈষৎ হাসিয়া আমাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, “মহাশয়! কোন্ অপরাধে শক্তিসাধন ধৃত হইয়াছে জানিতে পারি কি?”

 আমি বলিলাম, “হরিসাধন বাবুকে হত্যা করিয়াছেন, এই অপরাধে গ্রেপ্তার হইয়াছেন।”

 আমার কথা শুনিয়া তিনি বিস্মিত হইলেন না বরং আপনাআপনিই বলিয়া উঠিলেন, “আমিও ঠিক ঐ সন্দেহ করিয়াছিলাম।”

 অনন্তর একখানি গাড়ী ডাকিতে আদেশ করিলাম। শকট আনীত হইলে পূর্ব্বোক্ত কনষ্টেবল দুইজনকে বন্দীর সহিত আরোহণ করিতে আদেশ করিলাম।

 তিন জনে শকটে আরোহণ করিলে আমি কনষ্টেবলদ্বয়কে যথাযথ পরামর্শ দিয়া থানায় পাঠাইয়া দিলাম।

 কোচমান শকট চালনা করিবা মাত্র হরিসাধন বাবুর বাড়ীর অন্দর হইতে স্ত্রীলোকের ক্রন্দনধ্বনি আমার কর্ণগোচর হইল। প্রথমে যখন এই বাড়ীতে আসিয়াছিলাম, তখন যাঁহার কণ্ঠস্বর শুনিতে পাইয়াছিলাম, আজও তাঁহারই রোদনধ্বনি বলিয়া বোধ হইল। শক্তিসাধন অনেকবার বলিয়াছিলেন যে, তাঁহার জ্যেষ্ঠের স্ত্রী তাঁহাকে পুত্রবৎ স্নেহ করিয়া থাকেন। এখন তিনিই যে শক্তিসাধনের জন্যই ক্রন্দন করিতেছেন তাহা বুঝিতে পারিলাম।

 আর বৃথা সময় নষ্ট না করিয়া আমি তখনই থানায় প্রত্যাগমন