পাতা:জ্ঞাতি শত্রু - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

দারােগার দপ্তর, ২০২ সংখ্যা।


 কিছুদুর গমন করিলে পর আমি শক্তিসাধন বাবুকে জিজ্ঞাসা করিলাম, “আপনার জ্যেষ্ঠের বয়স কত?”

 শক্তিসাধন অতি নম্রস্বরে উত্তর করিলেন, “দাদা আমাঅপেক্ষা দশ বৎসরের বড়। দাদার পর আমার আরও দুইটা ভ্রাতা ছিলেন, তাঁহারা উভয়েই অকালে প্রাণত্যাগ করিয়াছেন।”

 আ। আপনার দাদা কর্ম্ম করিতেন?

 শ। আপাতত কোন কর্ম্মই করিতেন না। নিজের যৎসামান্য সম্পত্তি আছে তাহাই দেখিতেন।

 আ। পৈতৃক সম্পত্তি?

 শ। আজ্ঞে না—দাদার উপার্জ্জিত সম্পত্তি। জ্ঞাতিগণ মোকদ্দমা করিয়া আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি হইতে বঞ্চিত করিয়াছেন। আমি কিম্বা আমার জ্যেষ্ঠ আমাদের পৈতৃক সম্পত্তির এক কপর্দ্দকও পাই নাই।

 আ। তবে ত আপনার দাদার যথেষ্ট শত্রু আছে দেখিতেছি। যখন জ্ঞাতিগণের সহিত আপনাদের বিবাদ, তখন তাঁহারাই যে আপনাদের শত্রু তাহা ত বেশ বোঝা যাইতেছে। আপনাদের জ্ঞাতিবর্গের বাড়ী কোথায়?

 শ। আজ্ঞে আমাদের বাড়ী হইতে প্রায় অর্দ্ধক্রোশ দুরে। তাঁহাদের বাড়ী শোভাবাজারের নিকট।

 আ। সেই বাড়ীই কি আপনাদের পৈত্রিক সম্পত্তি?

 শ। আজ্ঞে হাঁ—মোকদ্দমায় পরাজিত হইলে দাদা স্ব-ইচ্ছায় সে বাড়ী ত্যাগ করিয়াছিলেন। ঈশ্বরের কৃপায় তাঁহার কয়েকখানি ভাড়াটীয়া বাড়ী আছে। তিনি পৈত্রিক বাড়ী ত্যাগ করিয়া বাগবাজারে নিজ বাটিতে আসিয়া বসবাস আরম্ভ করেন।