পাতা:ঢাকার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/৬৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

{१२ ॥ ঢাকার ইতিহাস। [ ॰१ १: রাজা হরিশ্চন্দ্রের রাজধানীর চিহ্ন বিদ্যমান রহিয়াছে, রাজাসন হইতে তাহা প্রায় দুই মাইল দূরে অবস্থিত। ইহাতে অনুমিত হয়, রাজা হরিশ্চন্ত্রের রাজধানীর সীমা নিতান্ত ক্ষুদ্রায়তন বিশিষ্ট ছিল না। ফুলবাড়ীয়া হইতে একক্রোশ পূৰ্ব্বে এবং রাজাসন হইতে এক ক্রোশ দক্ষিণে গান্ধারিয়া গ্রাম অবস্থিত। এই গ্রামের চতুর্দিক পরিখাৰেষ্টত ছিল। পরিখাটা পূর্ব দিকে দুইটা শাখা দ্বারা তুরাগ নদীর সহিত সম্মিলিত হইয়াছে। পশ্চিমদিক হইতে আর একট পয়ঃপ্রণালী বংশী নদী হইতে বহির্গত হইয় পরিখার সহিত সম্মিলিত হইয়াছে এই পরিখাবেষ্টিত স্থান মধ্যে একটা দুর্গের ভগ্নাবশেষ দৃষ্ট হয়। উছ রাবণ রাজার বাড়ী বলিয়া কথিত হয় । ইনি হরিশ্চন্দ্রের সমসাময়িক; রাবণ ভূপতি সঙ্গীতকলাভিজ্ঞ ছিলেন। তদীয় প্রাসাদ সঙ্গীতজ্ঞের আশ্রয়স্থল ছিল। তৌর্য্যস্থািকি সঙ্গীত শাস্ত্রের আলোচনাস্থল বলিয়া তীয় সভা দেশবিখ্যাত ছিল। ইহার বহুসংখ্যক ঢালী সৈন্ত ছিল। “ঢালিপাড়া” বলিয় একটী স্থান ইহার সন্নিকটে অদ্যাপি বিদ্যমান আছে। সোনারগাও । ব্ৰহ্মপুত্রের প্রাচীন প্রবাহ হইতে ২ মাইল দূরে অবস্থিত। অধুনা এই স্থান পানাম নামে পরিচিত। এই স্থানেই পাঠান রাঙ্কগণের রাজধানী প্রতিষ্ঠিত ছিল । তাহার। ইহাকে হাবেলী সোনারগ। বলিয়া অভিঞ্চিত করিতেন। সোনারগার রাজধানী অত্যন্ত স্নয়ক্ষিত ছিল । রাজপ্রাদাদের সদর দরজার স্ববিস্তৃত পরিখার উপরে একটা চলৎসেতু সৰ্ব্বদ বিস্তারিত থাকিত; রাত্ৰিৰোগে উঠাই রাখিলে কাহারও পুরীপ্রবেশের উপায় ছিল না। পরিখার উপরিস্থিত একটা প্রাচীন সেতুর সন্মুখভাগে তোরণায়ের ভগ্নাবশেষ পরিলক্ষিত হইয় থাকে। রাত্রি কালে এই ভোরণস্থার আবদ্ধ থাকিত; জুতরাং দিবাভাগ ভিন্ন নগরে