পাতা:তরুণের স্বপ্ন - সুভাষচন্দ্র বসু.pdf/১০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৯৪

তরুণের স্বপ্ন

অধিবেশনে রাজবন্দীদের কথা যখন উত্থাপিত হইবে তখন আমি উপস্থিত থাকিয়া স্বীয় কর্ত্তব্য পালন করি। চিকিৎসকদেয় অনুমতি পাইব কি না জানি না, যদি পাই, তবে কয়েকদিনের জন্য কলিকাতায় গিয়া প্রতিনিধির কর্ত্তব্য যথাশক্তি সম্পাদনের চেষ্টা করির। যদি যাইতে পারি এই আশায় কতকগুলি প্রস্তাব ও প্রশ্নের নোটিশ যথাসময়ে কাউন্সিলের জন্য পাঠাইয়াছি। কিন্তু যদি চিকিৎসকদের অনুমতি না পাই তাহা হইলে যত শীঘ্র সম্ভব আরোগ্যলাভ করিয়া যাহাতে জনসেবার্থ পুনরায় কর্ম্মক্ষেত্রে অবতীর্ণ হইতে পারি, তাহার জন্য সচেষ্ট হইব। চারিদিকে নবজাগরণের লক্ষণ দেখা দিয়াছে। জাতির জীবনস্রোতে আবার যখন বানের ডাক আমাদের কর্ণকুহরে প্রবেশ করিবে তখন যেন কায়মনে প্রস্তুত থাকিতে পারি, ইহাই সর্ব্বথা বাঞ্ছনীয়।

কিমধিকং। আপনার আমার শ্রদ্ধাঞ্জলি গ্রহণ করুন। ইতি—

উত্তর-কলিকাতা অধিবাসীগণের নিকট নিবেদন

[মান্দালয় জেল হইতে ২৪শে সেপ্টেম্বর ১৯২৭ তারিখে লিখিত নিবেদন-পত্রটি কর্ত্তৃপক্ষ আটক করেন। নিয়ে তাহা উদ্ধত হইল]

যথাবিহিত সন্মানপুরঃসর নিবেদন—

বঙ্গীয় ব্যবস্থাপক সভার সদস্য-নির্ব্বাচনদ্বন্দ্ব আমি জাতীয় মহাসমিতি (কংগ্রেস কমিটি) কর্ত্তৃক উত্তর-কলিকাতার অ-মুসলমান বিভাগের জন্য লভ্য-পদপ্রার্থীরূপে মনোনীত হইয়াছি। জনমত্তের আনুকূল্যের সংবাদ