পাতা:নবজাতক-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
নবজাতক
 

জেগে উঠে বসে ঠিকানা হারানাে
শূন্য-উধাও মনটা।
বুঝিতে পারিনে কত কী শব্দ,
মনে হয় যেন ধারণা
রাতের বুকের ভিতরে কে করে
অদৃশ্য পদ চারণা।
গাছগুলাে সব ঘুমে ডুবে আছে
তন্দ্রা তারায় তারায়,
কাছের পৃথিবী স্বপ্ন প্লাবনে
দূরের প্রান্তে হারায়।
রাতের পৃথিবী ভেসে উঠিয়াছে
বিধির নিশ্চেতনায়,
অভাষ আপন ভাষার পরশ
খোঁজে সেই আনমনায়।
রক্তের দোলে যে সব বেদনা
স্পষ্ট বােধের বাহিরে,
ভাবনা প্রবাহে বুদ্বুদ তারা
স্থির পরিচয় নাহি রে।
প্রভাত আলােক আকাশে আকাশে
এ চিত্র দিবে মুছিয়া,
পরিহাসে তার অবচেতনার
বঞ্চনা যাবে ঘুচিয়া।

৪২