পাতা:পঞ্চক মালা - বিজয় চন্দ্র মজুমদার.pdf/৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
শিশুর মা।

“তিনি” আমায় বলেন, আমি সুধাময়ী রাণী;
প্রাণে আমার সুধা ছিল, সত্য বলে’ মানি।
ঢেউ খেলিয়ে যতটুকু লাগে ঠোঁটে, চোখে,—
সেই টুকুত “তিনি” পান্‌ করেন ঢোকে ঢোকে।
প্রাণের বাসা-ঘরে সুধা ছিল জমাট্‌-করা
সেই সুধাতে মোদের জাদুর অঙ্গ খানি গড়া।

আমি যবে বাহু-পাশে বেঁধে ফেলি “তাঁয়,”
অতি ঘন স্বপ্ন নাকি জড়ায় তাঁহার গায়।
“তাঁরে” যখন বাঁধি, আমার বুকে মোহ কাঁপে
বুঝেছি,—“সে পরাণ ভরা স্বপনেরি চাপে।
প্রাণ-কোটরে শিশুর নীড়ে স্বপ্ন ছিল ভরা,
সেই স্বপনে মোদের বাছার অঙ্গখানি গড়া।

নয়কো মিছে, বলেন “তিনি” আমায় বেসে ভাল,
আমি নাকি চাঁদের মত আঁধার ঘরের আলো।
এই কপোলের কূলে কূলে পুলক্‌ যখন জাগে,
সত্য দেখি, আলোর ছিটে তাঁর কপোলে লাগে।

২৫