পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিবনাথ-জীবনী । میاوي؟ শিবনাথের দাদামহাশয় তখন চাপাতলায় সিদ্ধেশ্বর চন্দ্ৰেয় লেনে “মহাপ্রভুর বাড়ী” নামক এক বাড়ীতে বাসা করিয়াছিলেন। শিবনাথ সেই বাসায় কিছুদিন ছিলেন। সেখান হইতে র্তাহার । DD BBDBDD 00YY BB DBDD SB DBBD # 1 সেখানে হইতে ১৮৫৮ শালে বিদ্যাভূষণের “সোমপ্ৰকাশ” কাগজ বাহিয়া হয় । সেই সময় শিবনাথ তঁর পিতার সঙ্গে বহুবাজারে বেণিয়াপাড়ায় আর ত্রিক বাসায় গিয়া বাস করিতে থাকেন। সেটাও পুরুষের বাসা। শিবনাথ সেখানে বয়ঃপ্ৰাপ্ত পুরুষদিগের সহিত একমাত্র বালক হইয়া কিৰূপ ভাবে বাস করিতেন, তাহাব বর্ণনা আত্মচিবিতে করিয়াছেন। দুই বেলা দুটী মোটা ভাত, তাহাও সময় মত পাইতেন না । রাত্ৰে ভাত থাইতে এত দেৱী হইত। যে অধিকাংশ দিন পড়িতে পডিতে বই হাতে করিয়া ঘুমাইয়া পডিতেন, তখন পিতা হরানন্দ আসিয়া প্রহার করিয়া জাগাইতেন, এবং চক্ষের জলে ভিজাইয়া ভাত খাইতে হইত। সেখানকার নৈতিক আবহাওয়া একেবারেই ভাল ছিল না । বালক বলিয়া তাহার সম্মুখে পুরুষেবা অত্যন্ত অশ্লীল আলাপ কবিতেন। হয়ানন্দ ভট্টাচাৰ্য্য তাহা শুনিলেই অত্যন্ত বিবক্ত হইযা তাহাদিগকে তিরস্কার কৰিতেন। শৈশবের কুদৃষ্টান্ত জীবনে স্থায়ীভাবে অকল্যাণ করে, শিবনাথ তাঙ্গা বিশ্বাস করিতেন। জেলিযা পাডায় থাকিতে tB DcJ DBB DB BDS BBD DDD BDDD DBBDB কিছুদিন বহুবাজারে উঠিয়া গিয়াছিল। এই জেলিয়া পাড়ায়