পাতা:পত্রপুট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৬৮
পত্রপুট
 

আঠারাে

কথার উপরে কথা চলেছ সাজিয়ে দিনরাতি,
এইবার থামাে তুমি। বাক্যের মন্দিরচূড়া গাঁথি’
যত ঊর্ধ্বে তােল তা’রে তা’র চেয়ে আরাে ঊর্ধ্বে ধায়
গাঁথুনির অন্তহীন উন্মত্ততা। থামিতে না চায়
রচনার স্পর্ধা তব। ভুলে গেছ, থামার পূর্ণতা
রচনার পরিত্রাণ; ভুলে গেছ নির্বাক দেবতা
বেদীতে বসিবে আসি’ যবে, কথার দেউলখানি
কথার অতীত মৌনে লভিবে চরমতম বাণী।
মহা নিস্তব্ধের লাগি অবকাশ রেখে দিয়ো বাকি,
উপকরণের স্তূপে রচিয়াে না অভ্রভেদী ফাঁকি
অমৃতের স্থান রোধি’। নির্মাণ-নেশায় যদি মাতাে
সৃষ্টি হবে গুরুভার তার মাঝে লীলা র’বে না তাে।
থামিবার দিন এলে থামিতে না যদি থাকে জানা
নীড় গেঁথে গেঁথে পাখি আকাশেতে উড়িবার ডানা
ব্যর্থ করি’ দিবে। থামাে তুমি থামাে। সন্ধ্যা হয়ে আসে
শান্তির ইঙ্গিত নামে দিবসের প্রগল্‌ভ প্রকাশে।
ছায়াহীন আলােকের সভায় দিনের যত কথা
আপনারে রিক্ত করি’ রাত্রির গভীর সার্থকতা