পাতা:পলাতকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।




মালা

যদি রে তোর ভাগ্যদোষে
ধুলায় কিছু পড়ে থাকে খসে ।
যদি সোনার থালা
লুকিয়ে রাখে আর-কোনো এক মালা !

সন্ধ্যাকাশে শাস্ত তখন হাওয়া ;
দেখি, সভার দুয়ার বন্ধ, ক্ষান্ত তখন সকল চাওয়া পাওয়া ।
নাই কোলাহল, নাইকো ঠেলাঠেলি,
তরুশ্রেণী স্তব্ধ যেন শিবের মতন যোগের আসন মেলি ।
বিজন পথে আধার গগনতলে
আমার মালার রতনগুলি আর কি তেমন জ্বলে ?
আকাশের ঐ তারার কাছে
লজ্জা পেয়ে মুখ লুকিয়ে আছে।
দিনের আলোয় ভুলিয়েছিল মুগ্ধ আখি,
আাধারে তার ধরা পড়ল ফাকি ।
এরই লাগি এত বিবাদ, সারা দিনের এত তুখের পালা ?
লও ফিরে লও তোমার বিজয়মালা !

ঘনিয়ে এল রাতি ।
হঠাৎ দেখি, তারার আলোয় সেই-যে আমার পথের তরুণ সাথি
আপন-মনে
গান গেয়ে যায় রানীর কুঞ্জবনে ।
& Co.