পাতা:প্রহাসিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মিলের কাব্য নারীকে আর পুরুষকে যেই মিলিয়ে দিলেন বিধি পদ্য কাব্যে মানবজীবন পেল মিলের নিধি । কেবল যদি পুরুষ নিয়ে থাকত এ সংসার গদ্ভাকাব্যে এই জীবনটা হ’ত একাক্কার । প্রোটন এবং ইলেকট্রনের যুগল মিলনেই জগৎটা যে পদ্য তাহার প্রমাণ হল সেই । জলে এবং স্থলে মিলে ছন্দে লাগায় তাল, আকাশেতে মহাগদ্য বিছান মহাকাল । কারণ তিনি তপস্বী যে— বিশ্ব র্তাহার জ্ঞানে, প্রলয় র্তাহার ধ্যানে ॥ স্বন্ত্রিকার্যে আলো এবং আঁধার অনন্তকাল ধুয়ো ধরায় মিলের ছন্দ বাধার। জাগরণে আছেন তিনি শুদ্ধ জ্যোতির দেশে, আলো-আঁধার-’পরে তাহার স্বপ্ন বেড়ায় ভেসে । যারে বলি বাস্তব সে ছায়ার লিখন লিখা, অন্তবিহীন কল্পনাতে মহান মরীচিকা । দিদিমণি, বাস্তব নও নিশ্চয় তা জেনে । বিশ্বকবির স্বপ্ন বললে রাগ কোরো না যেন ॥ כא כ כ