পাতা:প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য - দ্বাদশ সংস্করণ.pdf/১০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য দিয়ে মলো ! পাহারাওয়ালার নাম হলো রাজা, মুটের নাম হলো সওদাগর। এ ছ দল কাজ করলে না—ফাকি দিয়ে মুড়ো মারতে লাগলো । যে জিনিষ তৈরী করতে লাগল, সে পেটে হাত দিয়ে 'হ ভগবান ডাকতে লাগলো । h ক্রমে এই সকল ভাব প্যাচাপেচি, মহা গেরোর উপর গেরো, তস্য গেরো হয়ে বৰ্ত্তমান মহা জটিল সমাজ উপস্থিত হলেন । কিন্তু ছিট মরে না। যে গুলো পূৰ্ব্ব জন্মে ভেড়া চরাত, মাছ ধরে খেত, সে গুলো সভ্য-জন্মে বম্বেটে ডাকাত প্রভৃতি হতে লাগলো। বন নেই—যে সে শিকার করে ; কাছে - পাহাড় পৰ্ব্বত নেই যে ভেড়া চরায় ; জন্মের দরুণ শিকার বা ভেড়া চরান বা মাছ ধরা :" কোনটারই সুবিধা পায় না—সে কাজেই ডাকাত করে, চুরি করে, সে যায় কোথা ? সে প্রাতঃস্মরণীয়াদের কালের মেয়ে, এ জন্মে ত আর এক সঙ্গে অনেক বর বে করতে পায় না, কাজেই হয় বেশ্বা । ইত্যাদি রকমের নানা ঢঙের, নানা ভাবের, নানা সভ্য অসভ্য দেবতা অসুর জন্মের মানুষ একত্র হয়ে—হয়েছে সমাজ । কাজেই সকল সমাজে এই নানারূপে ভগবান বিরাজ কচ্ছেন। সাধু নারায়ণ, So 8 -: