পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদাবলী—জ্ঞানদাস–১৬শ শতাব্দী ৷ eు) হিয়ার মাঝারে সাধ যে করে রাখিতে নাহিক ঠাঞি । অবলা-পরাণে হারাই হারাই বাসি খুজিয়া পাইতে নাই। অনেক যতনে পাইলাম রতন রাখিতে নারিনু কোলে। তাহে পাপ-চিত বিধি বিড়ম্বিল জ্ঞানদাস ইহা বোলে ॥ মুরলী করাও উপদেশ। যে রন্ধে, যে ধ্বনি উঠে জানাহ বিশেষ ॥ কোন রন্ধে বাজে বাশী অতি অনুপাম। কোন রন্ধে, রাধা বলি ডাকে আমার নাম। কোন রন্ধে বাজে বঁাশী সুললিত ধ্বনি। কোন রন্ধে কেক-শব্দে নাচে ময়ুরিণী ॥ কোন রন্ধে, রসালে ফুটয়ে পারিজাত। কোন রন্ধে, কদম্ব ফুটয়ে প্রাণনাথ । কোন রন্ধে ষড়ঋতু হয় এককালে। কোন রন্ধে নিধুবন হয় ফুল-ফলে । কোন রন্ধে, কোকিল পঞ্চম-স্বরে গায়। একে একে শিখাইয়া দেহ শু্যাম রায় ॥ জ্ঞানদাস শুনিয়া কহএ হাসি হাসি । রাধে মোর বোল বাজিবেক বাণী ॥ (১) অভিসার । মেঘ-যামিনী অতি ঘন আঁধিয়ার (২) । ঐছে সময়ে ধনী করু অভিসার ॥ ঝলকত যামিনী দশদিশ ব্যাপি (৩) । নীল বসনে ধনী সব তনু বাপি ॥ দুই চারি সহচরী সঙ্গ হি মেল (৪)। নব অনুরাগ-ভরে পথে চলি গেল ॥ (১) রাধাকে কৃষ্ণ বংশী-বাদন শিখাইতেছেন, কোন রন্ধে কি বাজিবে তাহা সকলই শিথাইলেন, কিন্তু জ্ঞানদাস বলিতেছেন,—রাধা-নামে-সাধা বাঁশী রাধার মুখেও রাধা বলিবে, তাহার উপায় কি ? (২) আঁধার = অন্ধকার । (৩) আচ্ছাদন করিয়া । (৪) মিলিল।