পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


سواوا ه « বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । ছি ছি কি শরতের চাদ ভিতরে কালিম। কি দিয়া করিব তোমা মুখের উপমা ॥ যতনে আনিয়ে যদি ছাকিয়া বিজরী। অমিয়ার সাথে যদি গঢ়াইয়ে পুতলী । রসের সায়রে যদি করাইয়ে সিনান । তবুত না হয় তোমার নিছনি-সমান ॥ হিয়ার ভিতরে খুঁইতে নহে পরতীত। (১) হারাঙ (২) হারাঙ হেন সদা করে চিত ॥ হিয়ার ভিতর হৈতে কে কৈল বাহির। (৩) তেঞি বলরামের পন্থর চিত নহে থির ॥ ছখিনীর বেথিত বঁধু শুন দুঃখের কথা। কাহারে মরম কব কে জানিবে বেথা ॥ কাদিতে না পারি পাপ-ননদীর তাপে । আখির লোর দেখি কহে কান্দে বধুর ভাবে। বসনে মুছিয়া ধারা রাখি যদি গায়। আন-ছলে ধরি গুরুজনেরে দেখায় । (৪) কাল নাম লৈতে না দেয় দারুণ শাশুড়ী। কাল হার কাড়ি লয় কালা পাটের শাড়ী। (৫) দুখের উপরে বধু অধিক আর দুখ। দেখিতে না পাই বঁধু তোমার চাদ-মুখ ৷ দেথা দিয়া যাইতে বঁধু কিবা ধন লাগে। না যায় নিলাজ প্রাণ কহি তোমার আগে ॥ বলরাম দাস বলে হউক অখ্যাতি । জীতে (৬) পাসরিতে নারি তোমার পরিতি ॥ (১) বক্ষের মধ্যে রাখিয়াও বিশ্বাস হয় না। (২) হারাইলাম। (৩) যে রূপ আমার হৃদয়ে প্রতিষ্ঠিত ছিল, তাহ কে বাহির করিল ? সেই রূপ আকার গ্রহণ করিয়া বাহিরে আসাতে, আমি পাছে হারাই, সৰ্ব্বদা আমার এই ভয় হয়। (৪) অন্ত ছলে ননদী সেই অশ্র-সিক্ত বস্ত্র গুরুজনকে দেখায়। (৫) পাছে তাহ দেখিয়া আমার কৃষ্ণকে মনে হয়। (৬) জীবন থাকিতে ।