পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/২৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


راسb < ہ" বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় সদাশিব মুরারি শ্ৰীমান শুক্লাম্বর। মিলিলা সকল যত প্রেম-অনুচর ॥ হেনই সময়ে বিশ্বম্ভর দ্বিজরাজ। আসিয়া মিলিলা যথা বৈষ্ণব-সমাজ । পরম আদরে সভে করেন সন্তাষ। প্রভুর নাহিক বাহ-দৃষ্টির প্রকাশ । দেখিলেন মাত্র প্রভূ ভাগবতগণ। পঢ়িতে লাগিলা শ্লোক ভক্তির লক্ষণ । পাইলু ঈশ্বর মোর কোন দিগে গেলা । এত বলি স্তম্ভ কোলে করিয়া পড়িলা ॥ ভাঙ্গিল গৃহের স্তম্ভ প্রভুর আবেশে । কোথা কৃষ্ণ বলি পড়িলেন মুক্ত কেশে। প্রভু পড়িলেন মাত্র হা কৃষ্ণ বলিয়া। ভক্ত সব পড়িলেন ঢলিয়া ঢলিয়া ৷ গৃহের ভিতরে মুৰ্চ্চা গেল গদাধর। কেবা কোন দিগে পড়ে নাহি পরাপর ॥ সভেই হইলা প্রেম-আনন্দে মূৰ্ছিত। হাসেন জাহ্নবী দেবী দেখিয়া বিস্মিত । কথোক্ষণে বাহ প্রকাশিয়া বিশ্বম্ভর । কৃষ্ণ বলি কান্দিতে লাগিলা বহুতর ॥ কৃষ্ণরে প্রভুরে মোর কোন দিগে গেলা । এত বলি প্ৰভু পুনঃ ভূমিতে পড়িলা ॥ কৃষ্ণ-প্রেমে কান্দে প্রভু শ্ৰীশচী-নন্দন। চতুর্দিগে বেঢ়ি কান্দে ভাগবতগণ ॥ আছাড়ের সমুচ্চয় নাহিক শ্ৰীঅঙ্গে । না জানে ঠাকুর কিছু নিজ প্রেম-রঙ্গে। উঠিল পরমানন্দ কৃষ্ণের ক্ৰন্দন। প্রেমময় হৈল শুক্লাম্বরের ভবন ৷ স্থির হৈয়া ক্ষণেকে বসিলা বিশ্বম্ভর । তথাপি আনন্দ-ধারা বহে নিরস্তর ॥ প্রভু বোলে কোন জন গৃহের ভিতর ব্ৰহ্মচারী বোলেন তোমার গদাধর।