পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৪২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । লুকাই বিঘত বনে তপাশিয়া শত জনে কেহ কি আমার লাগ পায়ে। তনু যদি করি গোট বিড়াল জিনিঞা ছোট বুকেতে চলিয়া যাইতে থাকি। মানুষ গরুর পাল দৈবেতে তাহার কাল লাফ দিয়া ধরি কাছে পার্থী ॥ বনে বাঘ টঙ্গ-ভাঙ্গা চক্ষু দুটা বড় রাঙ্গা চুরিতে চতুর বড় আমি । চাষা যত খন্দ রাখে টঙ্গেতে শুইয়া থাকে যাবন্ত আমার পেট লাগি ॥ প্রলয় যমের বাড়া টঙ্গ (১) ভাঙ্গি দেই লাড় ঠায় পড়ে খাইয়া আছাড় । ফিকির জানিঞা মূল বাশে জড়াইয়া চুল কারো বা পাতিঞা ভাঙ্গি ঘাড় ॥ থোড়া বাঘ বলে উঠি বাউলের প্রায় ছুটি তমু (২) মোর তিন খানি পা । গণ্ডার লুকায় কোলে ক্রোধের সময় ফুলে পৰ্ব্বত-সমান হয় গা ॥ বজ্র-দন্ত বলে ধীর শুনহ সাহেব পীর এত যে হইয়াছি বুড়া । বজ্র-তুল্য দন্ত-সারি পাষণে বসাইতে পারি হাড় হুকুমে করি গুড় ॥ যুবতী যতেক পাই যতন করিয়া খাই পেটনি পেটের লোভ আগে। না খাই বিয়ন্ত গুলা রক্ত হৈল অৰ্দ্ধ ঘুল কোলের ছাওয়াল ভাল লাগে ৷ দারিয়া বাঘের বেটা বলে বাঘ লাদা-পেটা না পারি পেটের ভরে যাইতে । মাও মোর কাল উচিতি শীকার করয় নিতি কিছু কিছু দেয় মোরে খাইতে । (১) ব্যাঘ্র-শিকারের জন্য উচ্চ মঞ্চ । (২) তমু=তবু= তথাপি ।