পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৮৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


›ፃፃፍ) বিচ্ছেদ আশঙ্কা । বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । একজন বলিল না দিলেও ত হবে না একজনকে দিতেই তো হবে মেয়েছেলে হওয়া মিছা । ঐ সকল কথা শুনিয়া আমার মনে ভারী কষ্ট হইতে লাগিল। আমি একেবারে অবাক হইয়া রহিলাম। পরে আমি বাটীতে গিয়া মাকে বলিলাম মা আমাকে যদি কেহ চাহে তবে কি তুমি আমায় দিবে। মা বলিলেন ষাট তোমাকে কাহাকে দিব এ কথা তোমাকে কে বলিয়াছে কোথা শুনিলে তোমাকে কেমন করিয়াই বা দিব । এই বলিয়া আমার মা চক্ষের জল মুছিতে মুছিতে ঘরের মধ্যে গেলেন। আমি দেখিলাম আমার মা কান্দিতেছেন। অমনি আমার প্রাণ উড়িয়া গেল তখন আমি নিশ্চয় জানিলাম আমাকে একজনকে দিবেন। তখন আমার । হৃদয় এককালে বিদীর্ণ হইয়া যাইতে লাগিল। আমি ভাবিতে লাগিলাম কি হইল আমার মা আমাকে কোথা রাখিবেন। ঐ কথা আমার মনের মধ্যে এত যন্ত্রণা দিতে লাগিল যে আমার মন একেবারে আচ্ছন্ন ও অবসর হইয়া পড়িল। আর কিছুই ভাল লাগে না। আমি কাহার সঙ্গে কথাও কহি না । আর কোন কাৰ্যও করি না। আমার খেতেও ইচ্ছা হয় না। দিব রাত্রি আমার কেবল কান্না আইসে। আমি ঐ কথা মনে ভাবিয়া সৰ্ব্বদা মনে মনে পরমেশ্বরকে ডাকিতাম। আর সকল সময়ই আমার চক্ষে জল পড়িত। এই প্রকার ভাবিতে ভাবিতে আমার শরীর এককালে শুকাইয়া গেল। এ সকল কথা আমার মনের মধ্যে থাকিত ইহা আর কেহ জানিত না কেবল পরমেশ্বর জানিতেন। আমি ইতিপূৰ্ব্বে শুনিয়াছিলাম সকল লোকেই বলিত যে সকলেরি বিবাহ হইয় থাকে। কিন্তু বিবাহের বিবরণ কি তাহা আমি বিশেষ কিছু জানিতাম না বিবাহ হয় এই মাত্র জানি। তখন সকল লোক আমাকে বলিতে লাগিল তোমার বিবাহ হইবে। আমাকে যত্ন করিতে কেহ কখন ক্রটি করেন নাই তথাপি বিবাহ হইবে বলিয়া আরো যত্ন এবং স্নেহ করিতে লাগিলেন। তথন আমার মনে বেশ আহলাদ উপস্থিত হইল। বিবাহ হইবে বাজনা আসিবে সকলে হুলু দিবে দেখিব। আবার ভয়ের সহিত কত প্রকার চিন্ত উপস্থিত হইতে লাগিল তাহ বলা যায় না। এই প্রকার হইতে হইতে ক্রমে দিন দিন ঐ ব্যাপারের জিনিষপত্র সমুদয়ের আয়োজন হইতে লাগিল। ক্রমেই সকল কুটুম্ব স্বজন বাটতে আসিতে লাগিল। ঐ সকল দেখিয়া আমার অতিশয় ভয় হইতে লাগিল। আমি কাহার সঙ্গে কথা কহি ন সকল দিবস কান্দিয়াই কাল যাপন করি। লোক আমাকে কোলে লইয়া কত সাস্তুনা করেন। তথাপি আমার মনের মধ্যে যে কি কষ্ট রহিয়াছে তাহা কিছুতেই যায় না।