পাতা:বাংলার পাখি - জগদানন্দ রায়.djvu/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্কুলেভািন বক যেসব পাখী নদী খাল বা পুষ্করিণীর ধারে চরিয়া বেড়ায় তাহাদের মধ্যে বোধ করি বকই প্ৰধান। তাই বকদের বিষয়ই তোমাদিগকে আগে বলিতেছি। তোমরা কত রকম বক দেখিয়াছ, জানি না । বাংলাদেশের নানা জায়গায় সাত-আট রকমের বক দেখা যায়। সাদা কঁক, লাল কঁাক, কেঁচ বক, গাই বগলা, কানা বগলা, নীল বগলা, কাঠ বগলা, এই রকম নানা নামের নানা বক আছে। আমরা ইহাদের সবগুলির কথা বলিতে পারিব না। যে-সব বক সর্বদা আমাদের চোখে পড়ে, কেবল তাহাদেরি কথা একটু-একটু বলিব। বকমাত্রেরই গলা এবং পা শরীরের তুলনায় বেজায় লম্বা। এই লম্বা গলা ঘাড়ের কাছে টানিয়া রাখিয়া খুব ভালো মানুষের মতো ইহারা জলের ধারে DDB BDSS DBD KB DBDBBD S SBB E0DBBDB DDD