পাতা:বাঙ্গালা ভাষার অভিধান (প্রথম সংস্করণ).djvu/৬২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চোক পাতা জলে ভারি হওয়া। চোক ছাড়ান— চক্ষু উঠা রোগে চোকের পাতা পিচুটিতে লিপ্ত হইলে সেই পাতা খোলা । চোক वॅझेरॉांझे कद्रां-बौन्द्र बां डीड আলোকে চকু ঝাপসাইরা বা ঝলসাইয় যাওয়া । চোক টাটান-অপরের ঐশ্বৰ্য্য বা সৌন্দর্ঘ্য দেখিয়া ঈর্ষ্য বা লোভবশতঃ চক্ষুর পীড়া হওয়া। চোক টেপা-চোকের পাত মেলিয়া সমুচিত করত ইঙ্গিত করা। চোক ठांद्र-रङ्ग দৃষ্টিতে ইঙ্গিত করা । চোক পাকান-রাগে ঘূশিতলোচন হওয়া । চোক ফুটা-চকুরুীলিত হওয়া ৷ ২ ৷ প্রকৃত বির জানিতে পার । চোক ফুটান –চোক খুলিয়া দেওয়া। ২। প্রকৃত বিষয় জানান : সাবধান করিয়া দেওয়া । চোক মটকান—চোক টেপা দ্রঃ । চোক রাঙান—ক্রোধে চক্ষু রক্তবর্ণ করা। ২ । তীব্র দৃষ্টিতে ভয় দেখান। কটা চোক –চোকের তারা ঘন কৃষ্ণ না হইয়া পীতাভ ; যে চোকের চারিদিকে কটাবর্ণ : বেরালঢোক । কুঁচ চোক—যুদ্র গোল চক্ষু। কুটুরে চোক ; কোটর চোক— থোলের ভিতর ঢুকিয়া গিয়াছে যে চোক। ঘোলা চোক—যে চক্ষু উজ্জ্বল নয় ; ঘোলাটে । টানা চোক—দুই কর্ণের দিকে প্রসারিত চোক । টেরা চোক— যে চোকের দৃষ্টির গতি বক্র। ড্যাবর চোক—যে চোকের ডবডবে চাহনি ; যে চোকের তারা বড় ও সন্মুখ দিকে ঠেলিয়া আসিয়াছে। পটলচেরা চোক— পটল লম্বে দুভাগ করিলে যেমন দেখায সেইরূপ প্রসারিত চক্ষু। পানসে চোক— [পানীসা হইতে পানসে ] জলে যেন ভাসিতেছে এমন তারা বিশিষ্ট চোক ; ভাসা চোক । ২ । যে চোকের তাঁরা ঘোরাল নহে, খুব কালও নহে, খুব কটাও নহে, বরং একটু নীলের আভাযুক্ত । ভাল চোক—শুভদৃষ্টি। অমুকুল দৃষ্টি; প্রতিদৃষ্টি। মন্দ চোক-কুদৃষ্টি , অপ্রিয় দর্শন। রাঙt চোক—ক্রোধে রক্তবর্ণ চোক । ২। নেশায় লাল চোক । লাল চোক—রাঙা চোক দ্রঃ । সাদা চোক—যে চক্ষু নেশায় বিকারপ্রাপ্ত নহে ; সহজ দৃষ্টি। একচোকো—যে এক পক্ষে দেখে ; পক্ষপাতী । চোকে আঙ্গুল দিয়া দেখান—দৃষ্টি আকর্ষণ করিয়া বা ভিতরের ব্যাপার বুঝাইয়া কোথায় দেখিতে হুইবে নির্দেশ করিয়া বিশেষভাবে দেখান । চোকোচোকি--সামনাসামনি ; দেখাদেখি । চোকে চোকে (tS) রাখা–কাছার প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখা। দৃষ্টির বাহিরে বা আড়ালে বাইতে না দেওয়া । চোকের দেখা-শুদ্ধ দর্শন, আলাপের বা সঙ্গ মুখের জন্ত নহে। ২ । ক্ষণের দেখা । প্র— “কি জানি কি ঘুম বোরে কি চোখে দেখেচি তারে”—সারদামঙ্গল । চোকের নেশা —দেখিবার জন্ত তীব্র_ক্টোক বা উৎকট আগ্রহ। চোকের বালি-চোকের পীড়াদায়কঃ চক্ষুশূল। প্র—“ননদিনী দেখয়ে চোকের বালি।”—চণ্ডীদাস । চোকের ভুল—দৃষ্টত্রম। চোকের মাথা খাওয়া —কাণা বা অন্ধ হওয়া । চোকের সুখ —প্রিয় দর্শন : মুদৃষ্ঠ দেখিয়া আরাম । চোকের পাতা–চক্ষুর পল্লব ; নেত্র পল্লব : চোকের পাতার রে"tয়া— চক্ষুর পল্লবে যুক্ত রোম । চোকের পলক –চক্ষুর পাতার পতন ; নিমেষ । চোক উঠা-চক্ষুরোগবিশেষ ; যে রোগে চক্ষু লাল হয়, জ্বালা করে, চাহিতে পার! যায় al : opthalmia. C5f7F RN5|–5 #3 স্পণন । চোকর, ল (র ল) [ হি–চোকর । সং— চোলক ( বল্কল, ত্বক—শদরত্নাবলী )—বর্ণ বিপৰ্য্যয়ে চোকল, ল=র ] বি, শস্তের ত্বক বা ছাল : গমের ভুসি । চোকলা, চাকলা ( ক্ ) { সং–চোলক ( বল্কল—শব্দরত্নাবলী ) : বর্ণবিপর্য্যয়ে, চোকল —আ! ( অনাদরে ) চক্র হইতে চাক +লা ( অনাদরে ) ] বি, ফলাদির গোস৷৷ ২ ৷ ফলাদির পাতল গোল খণ্ড । চোকা—চুক দ্রঃ । চোকান (নো ) { চুকান দ্রঃ ! চুকা ধাতুর ণিজন্তরূপ ] ক্রি, নিষ্পত্তি করা : মিটান । ২ । সমাপ্ত করা । ৩ । চোথান (দ্র: ) ; তীক্ষ করা । চোকাল [ চোক-আল ( বুলি ) ] বিণ. চোকা : তীক। চোকাল-মুখাল— চতুর চালাক ; কইরে বইয়ে ; smart. চোখ, চোখ ( খ, ) { সং–চোক্ষ=দক্ষ তীক্ষ । সুন্দর ] বিণ, দক্ষ : নিপুণ ৷ ২ ৷ ” ৩ । তীক্ষ্ণ ; খরশাণ । প্র—“চোথ চোখ বাণ” —কৃত্তিবাস। "বাছিয়া ৰাছিয়া মারে চোথা চোখ শর ”—ঐ । ৪ । অন্তর্ভেদী ; কাটা কাটা। প্র—“বাক মুখে কথা কহে চোথা"—ভা, চ | চোখ ( , ) ( সং–চক্ষু—অপভ্রংশে–চোক, চোখ ] বি, চক্ষু , অক্ষি। চোক দ্রঃ । চোক-ঠারা—নয়নের ইঙ্গিত করা। চোখ গেল (চোখ গেলে ) { ডাকের অনুকরণে নাম ] বি, কোকিলজাতীয় প্রসিদ্ধ চোট

  • ांथी ; viनिब्र (ज: ) ; ईशांब्रां “dफ्रांर्ष cनंण চোখ গেল” রৰে চতুর্দিক ৰন্ধারিত করে এবং কোকিলের স্থায় ক্রমেই স্বর চড়াইতে থাকে, ইহারাও অন্ত পার্থীর বাসায় ডিম পাড়ে । চোখা, চোখো, চোকা, চোকো [ হি–চোখ ( থাটি ) ] বিণ, চোখ (দ্রঃ) তীক্ষ ; তীক্ষধার ; খরশাপ ৷ ২ ৷ অস্তুর্ভেদী ; মৰ্ম্মভেদী : কাটা কাটা । প্র—চোথা চোখ কথা । এ । তীব্র । ৪ । তীব্র আস্বাদ । প্র-চোখ গুড়। ৫ । বিশুদ্ধ ; থাটি ; অমিশ্র। প্র—চোখ। মাল। চোখোলমুখলো—চোকাল দ্রঃ । চোখানো ( নো ) { উচ্চারণভেদে চোকান। চোখ ( তীব্র )—আন (করা অর্থে)। উ-পু— চোখাই । ম-পু—চোথাও (সমানে ) ; চোখ (অনাদরে ) । প্র-পু—চোথায় । সম্বমে— ম,পু. প্র-পু—চোথান। অসক্রি—চোথাইতে ; চোথাইয় ] ক্রি, চোপ করা : ধার করা : শাণ দেওয়া । মুখ চোখনো—শাণ দিবার অনুকরণে জিহ্বা ওষ্ঠাধরে বুলান। থাইবার বা কোন কথা বলিবার উদ্যোগ ব| আগ্ৰহজ্ঞাপক । চোখো [ চোখ (দ্র: ) +উআ ] বিণ. চক্ষুযুক্ত ।

২ । তীব্র : উগ্র ৷ ৩ ৷ তীক্ষ্ণধার। চৌগা [ ল্যা—টোগা ; ফু!—চোগা ] বি, এক প্রকার শ্লথ বহির্বাস : যে ঢিলা ও সন্মুখে পোলা জামা চাপকাণের সহিত পরিহিত হয় । প্র—চোগা চাপকন । চোঙ্গ [ রূপান্তরে—চোঙা ; হি–চোঙ্গ । বাং-তে চোঙ্গও বলে। সরু অর্থে চুঙ্গী ] বি, বড় নল ; বঁাশের নল । চোট (টু ) { সং—চুটু (ছেদনে) । হি— চোট্‌=আঘাত বি, আঘাত : কোপ ; চোপ । প্র—আর একটা চোট দিলেই গাছটা পড়ে যাবে। "এক চোটে গজস্কন্ধ করিয়া ছেদন" —কবিক । ২ । প্রহরণাদির আঘাত বা পতন হেতু ক্ষত জপম। প্র—হাত পায়ের চোট ভাল হয়ে গেছে। মাথায় যে চোট লেগেছে সেইটাই এপন সাঙ্ঘাতিক হয়ে দাড়িয়েছে। ৩ । কোপ : ক্ৰোধ । প্র—চোট করে কথা বলা । ৪ । বল ; জোর ; শক্তি ; প্রভাৰ । প্র—গুতার চোট : মস্ত্রের চোট ৷ ৫ ৷ সুযোগ। প্র—“বেঁচে থাক মুখুর্য্যের পে৷ খেল্পে ভাল চোটে"—হেম বন্দ্যো । ৬ । বেগ ; ধমক ; তোড় । প্র—“যেতেছে ছিড়ে প্রচও হাসির চোটে কলিজা ধমনী”—প্রেম ও ফুল । “কণার চোট"। চোট করা—রাগ করা ; কোপ করা । ২। আঘাত কর। চোটলাগান, চোট মারা—আঘাত করা। চোট বসান-অন্ত্রের কোপ মারা। চোট