পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/২৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রাম বসু । দেখো কৃষ্ণ তুমি ভুলনা। আমি কাল ভাল বাসি বোলে, আমায় ভাল কেউ বসে না। আমারে শ্ৰীচরণে ঠেলন। নাহি কোন সম্পাদ আমার, কেবল দিবানিশি ঐ ভাবনা | আমি তব লাগি, সৰ্ব্বত্যাগি, হোলেম কালচাদ রটালে গোকুলে, কালা পরিলাদ । আমাষ ধে আমার বলে শ্যাম, এমন দুখের দোশর কোই মেলে না। এসো মতন প্রেম করি, প্রাণ বাধা রেখে প্রাণ । রাখবে সৃদয় মন্দিরে, লেৰে প্রেম ডোরে, প্রেমের প্রহরী থাকলে আমার নয়ন ॥ প্রাণে থেকে প্রাণ, রেখে মান, S 3에 3 | হলে এ বড় পরিবত্ত সম্বন্ধ । গেলেও স্থানান্তরে, দেখবো অস্তরে, প্রাণ বলে ডাকূলেও আনন্দ ॥ ধাতে মন দিলে মন পাই, হাতে রেখে হতে ষাই । যেন কেউ করে হানতে নারে বিচ্ছেদ বাণ। ন হোলে মনে মনে ঐক্যতা, সখ্যতা, ন হয় মুখোদয় । বিনে ঐক্যে, হাসে যত বিপক্ষে, দুই পক্ষে দুখে প্রাণ দয়। যেন এবার আর তা ন হয়, এক ভাবে ভাব রয়। শেযেতে দেশে না হই অপমান । যদি বেঁচে থাকি ওগো সখি, শঠের সঙ্গে আর পিরীত কেৰ্ব্বে না। না কোরে প্রেম ছিলাম ভালে, কোরে একি জ্বালা হলো, লজ্জা শরম সকল গেলে, f : কেউ ভাল বলে না। "ীতের বাজারে সই, আর যাব ম৷ , (గt মিছে ছল কোরে লেলে কিবে ফল । মনের মিলন ছিলো, বিচ্ছেদ হেলে, হংস মুখে পিরীত যেন দুগ্ধ জল ৷ পিরীতে জীবন জুড়াতে সখি আমার কুল গেলে কলঙ্গ হোলো, ববে পরে সবাই করে অপমান। পিরীত সুসং ছোয়ে হোলো বিপক্ষ । যেমন খুলের মিলন, জলের লিখন, সদ্য সদ্য সূচে গেলে সম্পর্দ ॥ দেখে কুতর্ক কুব্যবহাপ, সতর্কে আছি এবার, পরের পরকীয় রসে ভুলবে না। তবে নাকি উমার তত্ত্ব কোরেছিলে । গিরিরাজ ! ওহে শুন শুন, তোমার মেয়ে কি বলে । নারী প্রবেধিতে যেতে হে, কৈলাসে যাই বোলে, এসে বলতে মেনকা, তোমার দুঃখের কথা, উমা সব শুনেছে । তোমায় দেখতে পাযাণী, আপনি ঈশানী, আসতে চেয়েছে। তুমি গিয়েছিলে কই, উমা বলে ঐ হে, আমি আপনি এসেছি জননী বোলে ॥ তারাহার হোয়ে, নয়নের তার হার হোয়ে রই। সদা কই, উমা কই, আমার প্রাণ-উমা কই । আমার সেই হারা তারা, ত্ৰিজগতের সারা, বিধি এনে মিলালে । উমা চন্দ্ৰবদনে, ডাকৃছে সঘনে, মা মাম বলে। উমা যত হেসে কয়, ওতে-হাসি নয় হে, যেন অভাগীর কপালে অনল জলে ॥ ভাল হোকৃ হোকৃ ওহে গিরি, যাই আমি মারী, তাই ভুলি বচনে। তোমার কি মনে, হোত না হে সাধ, হেরিতে উমার চম্রামনে । আশাবাক্যে আমার পাপ প্রাণ রহে বল কতদিন । দিনের দিন, তনু ক্ষীণ, বারিহীন, যেন মীন। যারে প্রাণ পাব দেখে, সংবৎসরে তাকে, আনতে তে যেতে হয়।