পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৩০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দাশরথি রায় । 之 > S) ভবে এ নীল ধন কে আনিলে, বিনিমূলে তরুমূলে, ও নীলবরণ কিনিল মেরে ॥ আমি এক কোথা রাখি, কিছু ধরে গে ধরে গো সখি ! রূপ আমার আঁখিতে ন ধরে । কোটি আঁখি দিলে বিধি, কিছু কাল ঐ কালনিধি— হেরিলে আঁখির দুঃখ হরে। ঐ যে কালরূপ, বিশ্বরূপারাপ, দাশরথি কয়, শ্ৰীমতি দেখ নথুনমুদে অন্তরে ॥ বাহার--কাওয়ালী । আর কি করি করি, বলে গে। বুন্দে । • છે – $13ાનો হায় হায়! লজ্জায় প্রাণ যায়, গিরিজায় পূজে যায়, পতি পাব অবিলম্বে । সেই নবনী-চোর, নবীন নাগর, ঐ যে গোবিন্দ, লইয়ে বসন উঠেছে কদম্বে ॥ আছে কি ভাবে মত্ত হয়ে, রাধার বস্ত্র লয়ে, আছে রাধার নাম-অবলম্বে । রমণী দুঃখে ভাসে, ও গিয়ে বৃক্ষে হাসে, শ্ৰীহরির প্রতিকূলে, কার্য কি সই গোকুলে । হারালাম আকুলে অনুকূল শ্ৰীগোবিন্দে ॥ ধন মন কুল শীল সঁপিলাম যাহারে, সে ত্যজিল,—ন দিল স্থান চরণারবিন্দে ॥ ললিত-—সু। পতাল । অপরূপ বিশ্বরূপ, হেরে হয় মন মোহিত। নাল গিরিবরে যেন, কনকলতা-জড়িত । কদম্বতলেতে আসি, যুগল শশী মিলিত ॥ হেরি শশী হলো মসী, ভয়ে পলায় মন্মথ । ও যুগল পদাম্বুজদল, দাশরথির বাঞ্জিত, ভবের ভাবনা যাবে কি করিবে রবিমুত । ললিত—একতালা । শ্ৰেমে মত্ত চিত্ত,—যে ধন ত্ৰিলোচন বুকে রেখে ! তাকি পায় শুমা ! সামান্ত লোকে, ওম কালি কালবারিণি ! কালের শঙ্কা কে না রাখে । মা তোর ধরতে চরণ করে এত বুক্‌, হাত দিবে তোর কালের বুকে ॥ অভয়া ! তোর অভয়চরণ অভিলাষী আর হবে কে ? করে স্বহস্তে সই, শিবকে চরণ, দিয়েছ সনদ লিখে ॥ | সুখ-আশে পড়েছি বিড়ম্বে । হরি করি সাধ, হরিষে বিষাদ, আর কি আছে ভাগ্যে মোদের এই তো আরন্তে ॥ থাম্বাজ—ক{ওয়!লী । তোমার এ কেমন বাসনা, হরি । কুলবপুর নিলে বাস হরি,— আর কতক্ষণ জলে বাস করি, যাব আমরা বাস, ওহে নিদয় পীতবাস ! | বাস দিয়ে বাজাও বঁশিরী ॥ শীতে ঋতু শীতল, জলে কাপে কায়, কি কর হে জলদকায় । রমণী বিরহে দহে, এ রসে পৌরুষ কি হে! এই যে শুনিলাম তুমি রসবিহারী। কত সাধের সাধনায় তোমায় সাধিলাম, সাধ না পুরালে হে শুম ! অধিনীদের হবে কান্ত, তাতো হলো না হে একান্ত, অধিকান্ত একি হে লাজে মরি। து_க_ ললিত—একতালা । জলে স্থলে রই, তোমার অন্ত কই, অন্তরীক্ষে আমি আছি হে সখি ! কে পায় অস্ত মম, অনন্ত মোর নাম, অন্তরীক্ষে জীবের অন্তরে থাকি ॥ আমি-ভিন্ন স্থানে লুকাবে কিরূপ, অপরূপ আমার নামটী বিশ্বরূপ, নৃসিংহ-রূপে, দনুজ ভূপে, নাশিতে হে,— আমি স্তম্ভ মধ্যে গিয়া প্ৰহলাদে রাখি ।